• সোমবার, এপ্রিল ০৬, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৫:৫১ সন্ধ্যা

চলতি বছরে ডেঙ্গুর প্রকোপ বৃদ্ধির আশঙ্কা

  • প্রকাশিত ০৬:১১ সন্ধ্যা মার্চ ১৫, ২০২০
ডেঙ্গু পরিস্থিতি
ডেঙ্গু আক্রান্ত এক শিশু। ফাইল ছবি। মাহমুদ হোসেন অপু/ঢাকা ট্রিবিউন

ডেঙ্গুর কারণে গত বছর প্রাণহানি হয় ১৭৯ জনের এবং ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন ১ লাখ ১ হাজার ৩৫৪ জন

বাংলাদেশে পাঁচজন শনাক্ত হওয়ার পর করোনাভাইরাস আতঙ্কের মধ্যেই, প্রাক-বর্ষাকালের এ সময়ে এবার আরেক বিপজ্জনক রোগ ডেঙ্গুর প্রকোপ ধীরে ধীরে বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। গত বছরও ডেঙ্গুর প্রকোপে নাজেহাল হয়ে উঠেছিল নগরবাসী।

বিশেষজ্ঞরা সতর্ক করে জানিয়েছেন, গত বছরের তুলনায় এ বছর এডিস মশাবাহিত ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব মারাত্মক আকার ধারণ করতে পারে কারণ বসন্তের প্রথম দিক থেকেই মশার উপদ্রব খুব বেশি।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর (ডিজিএইচএস) এবং জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি গবেষক দলের আলাদা দুটি জরিপে, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) ও ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) বিভিন্ন ওয়ার্ডে আশঙ্কাজনকহারে এডিস মশার লার্ভা পাওয়া গেছে।

গত বছর ভয়াবহ ডেঙ্গুর প্রকোপ দেখা দিয়েছিল বাংলাদেশে। ডেঙ্গুর কারণে গত বছর প্রাণহানি হয় ১৭৯ জনের এবং ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন ১ লাখ ১ হাজার ৩৫৪ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছরের শুরু থেকে শনিবার (১৪ মার্চ) সকাল ৮টা পর্যন্ত দেশে কমপক্ষে ২৬২ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন।

এডিস মশার বিস্তার নিয়ে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনে এক সমীক্ষার সময় গবেষণায় নেতৃত্ব দেওয়া জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের পতঙ্গবিজ্ঞানী অধ্যাপক কবিরুল বাশার জানান, গত বছরের জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারি মাসে ৫৬ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছিলেন এবং চলতি বছরের একই সময়ে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়েছেন ১৩৯ জন, যা রাজধানীতে এডিস মশার ঘনত্ব বাড়ার ঈঙ্গিত দেয়।

তিনি বলেন, যেহেতু এ মাসের শুরু থেকেই হালকা বৃষ্টি শুরু হয়েছে, এখনই সঠিক পদক্ষেপ না নিলে গত বছরের তুলনায় এ বছর ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা আরও বৃদ্ধি পেতে পারে।

কবিরুল বাশার আরও বলেন, এডিস মশার ঘনত্ব হ্রাস করতে এর প্রজনন ক্ষেত্রগুলো এই মাসের মধ্যেই ধ্বংস করার উদ্যোগ নিতে হবে দুই সিটি করপোরেশনকে।

"জুন থেকেই পুরোদমে বৃষ্টিপাত শুরু হয়ে যাবে এবং এ সময়েই ডেঙ্গুর প্রকোপ বাড়তে থাকবে, যদি এডিস মশার প্রজনন ক্ষেত্রগুলো ধ্বংস না করা হয়", বলেন তিনি।