• রবিবার, এপ্রিল ০৫, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:০৬ দুপুর

ফেসবুকে বন্ধুত্ব: রেস্টুরেন্টে ডেকে নিয়ে কিশোরীকে ধর্ষণ

  • প্রকাশিত ০৭:৫৪ রাত মার্চ ১৬, ২০২০
ধর্ষণ-শিশু-যৌন হয়রানি
প্রতীকী ছবি বিগস্টক

চিৎকার করতে চেষ্টা করলে তাকে হত্যার হুমকি দিয়ে রেস্টুরেন্ট থেকে বের করে দেওয়া হয়

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বন্ধুত্বের সূত্র ধরে এক কিশোরীকে রেস্টুরেন্টে ডেকে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে উঠেছে আল আমিন সিকদার (২১) নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে।   

রবিবার (১৫ মার্চ) বিকেলে ভুক্তভোগী  কিশোরী বাদী হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত এই ঘটনায় কোনো মামলা হয়নি। অভিযুক্তের আল আমিন সিকদার ফতুল্লার দেলপাড়া পেয়ারাবাগান ব্যাংক কলোনী এলাকার বাসিন্দা।

ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসেন ঢাকা ট্রিবিউনকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।  

পুলিশ জানায়, ভুক্তভোগী কিশোরী স্থানীয় একটি পার্লারে চাকরি করে। কিছুদিন আগে ফেসবুকে আল আমিনের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। গত ৯ মার্চ বিকেলে ওই কিশোরীকে দেলপাড়া কলেজ রোড সংলগ্ন একটি রেস্টুরেন্টে যেতে বলে আল আমিন। কিন্তু রেস্টুরেন্টে ঢুকে অভিযুক্ত আল আমিন ছাড়া কাউকে দেখতে পায়নি ওই কিশোরী। 

কিছুক্ষণ পরে রেস্টুরেন্টের একটি কক্ষে ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করে অভিযুক্ত। চিৎকার করতে চেষ্টা করলে তাকে হত্যার হুমকি দিয়ে রেস্টুরেন্ট থেকে বের করে দেওয়া হয়। 

পুলিশ আরও জানায়, আলা আমিনের ঠিকানা সংগ্রহ করে তার বাড়িতে গিয়ে বিষয়টি তার বাবা ও পরিবারের সদস্যদের জানানো হয়। কিন্তু তারা বিষয়টিকে পাত্তা না দিয়ে হুমকি দিয়ে তাকে তাড়িয়ে দেয়। পরে রবিবার (১৫ মার্চ) ফতুল্লা মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে ওই কিশোরী।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি আসলাম হোসেন ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা ভুক্তভোগী কিশোরীর সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। ওই কিশোরী অভিযোগ দায়ের করলেও মামলা করতে রাজি হয়নি। তার পরিবার চায় অভিযুক্তের সঙ্গে তাদের মেয়েকে বিয়ে দিয়ে বিষয়টির সমাধান করতে। তবে আমরা তো বিয়ের সিদ্ধান্ত নিতে পারি না। পুলিশ বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করছে। অভিযুক্ত আলামিনকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।