• মঙ্গলবার, মার্চ ৩১, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:০১ দুপুর

নারীর মৃত্যুতে করোনাভাইরাসের গুজব, পরিবার একঘরে

  • প্রকাশিত ০৪:৩২ বিকেল মার্চ ২৫, ২০২০
লাশ

চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন বলেন, ‘চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসে কেউ মারা যায়নি। সীতাকুণ্ডের এক নারীর স্বাভাবিক মৃত্যু নিয়ে অহেতুক গুজব ছড়ানো হচ্ছে’

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে সাধারণ জ্বর ও কাশিতে আক্রান্ত এক নারীর মৃত্যু পর করোনাভাইরাসে আক্রান্ত গুজবে ওই এলাকার মানুষের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে এবং পরিবারটিকে একঘরে করে রাখার অভিযোগ উঠেছে।

সীতাকুণ্ড পৌরসভার শেখপাড়ায় মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) রাতে ওই নারীর মৃত্যু হয়।

পরিবার, চিকিৎসক ও প্রশাসনের দাবি, রেনু বেগম (৪৫) নামের ওই নারীরর করোনাভাইরাসে মৃত্যু হয়নি। তার স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে এবং এতে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই।

স্থানীয়রা জানান, সীতাকুণ্ড পৌরসভার শেখপাড়া এলাকায় কামাল উদ্দিনের স্ত্রী রেনু বেগম গত একসপ্তাহ ধরে বাপেরবাড়ি কুমিরায় জ্বর-কাশিতে আক্রান্ত হয়ে অসুস্থ ছিলেন। মঙ্গলবার একটি ব্যক্তিগত গাড়িতে করে অসুস্থ অবস্থায় তাকে সন্ধ্যায় স্বামীর বাড়িতে আনা হয় এবং বাড়িতে আনার প্রায় দুইঘণ্টা পর মারা যান তিনি। কিন্তু তার মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে এলাকাবাসীর মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। গুজব রটিয়ে যায় করোনাভাইরাসে এই নারীর মৃত্যু হয়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দা ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নুর উদ্দিন জানান, দুইসপ্তাহ আগে ওই নারীর মাও জ্বর, সর্দি-কাশিতে মারা যায়। পরে রেনু বেগম জ্বর, সর্দি-কাশিতে আক্রান্ত হলে বাপের বাড়িতেই স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা চলছিল।এরমধ্যে তার অবস্থা সংকটাপন্ন হলে সীতাকুণ্ডে স্বামীর বাড়িতে আনা হয়।

পৌরসভার ওই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র হারাধন চৌধুরী বলেন, “মৃত্যুর খবর পেয়ে বিষয়টি ইউএনও’কে জানিয়েছি। নিহত নারীর বাড়িতে করোনাভাইরাস আতঙ্কে কেউ যাচ্ছে না। তবে দীর্ঘদিন ধরে জ্বর-কাশিতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে বলে নিহতের স্বামী স্বীকার করেছে।”

বিষয়টি নিয়ে উপজেলা নিবার্হী কর্মকতার মিল্টন রায় জানান, “স্থানীয় কাউন্সিলর ঘটনাটি আমাকে অবগত করার পর ওই বাড়িতে প্রশাসনের লোক পাঠানো হয়েছে।” কীভাবে মারা গেছে বা ঘটনার সম্পর্কে জেনে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন সেখ ফজলে রাব্বি মিয়া বলেন, “চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসে কেউ মারা যায়নি। সীতাকুণ্ডের এক নারীর স্বাভাবিক মৃত্যু নিয়ে অহেতুক গুজব ছড়ানো হচ্ছে।”

মারা যাওয়া নারীর দেহে করোনার কোন আলামত পাওয়া যায়নি উল্লেখ করে সিভিল সার্জন বলেন, “ওই নারীর কোনও নিকট আত্মীয় প্রবাস থেকে আসেনি, কিংবা তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কোনও রোগীর সংস্পর্শেও যাননি। তাই এনিয়ে সবাই আতঙ্কিত না হওয়ার অনুরোধ জানাচ্ছি।”