• রবিবার, এপ্রিল ০৫, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:৪৪ দুপুর

বগুড়ায় ওরসে বাধা দেয়ায় পুলিশকে মারধর

  • প্রকাশিত ০৪:৫৫ বিকেল মার্চ ২৬, ২০২০
বগুড়া-গ্রেফতার
বগুড়ায় সরকারি কাজে বাধা ও পুলিশকে মারপিটের অভিযোগে ২৪ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঢাকা ট্রিবিউন

পুলিশ দুই দফায় নিষেধ করে যাওয়ার পরও সরকারি নির্দেশ অমান্য করে ওরস পালন করছিলেন ভক্তরা 

বগুড়ায় সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ওরস পালন করতে নিষেধ করায় পুলিশের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় শহর আওয়ামী লীগের সাবেক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক, পৌরসভার সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম নয়নসহ ২৪ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বুধবার (২৫ মার্চ) রাত সাড়ে ৯টার দিকে শহরের সুলতানগঞ্জপাড়ার একটি বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে বলে নিশ্চিত করেছেন সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম বদিউজ্জামান।

জানা যায়, স্থানীয় পীর সিরাজুল হক চিশতির মৃত্যুবার্ষিকীতে প্রতি বছর ভক্তরা বাড়িতে থাকা মাজারের পাশে বিভিন্ন অনুষ্ঠান করে থাকেন। মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে উরসে বুধবার ২৫ মার্চ বিপুলসংখ্যক ভক্ত আসেন। করোনাভাইরাসের কারণে যেকোনও জনসমাগম নিষেধ থাকার পরও এ আয়োজন করায় পুলিশ দু’দফা নিষেধ করে যায়। এরপরও ভক্তরা সেখানে অবস্থান করায় রাত সাড়ে ৯টার দিকে উপশহর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক নান্নু খান ও সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) জাহিদুল ইসলাম আসেন। তারা আবারও অনুষ্ঠান করতে নিষেধ করায় ভক্তরা দরজা বন্ধ করে এই দুই পুলিশ কর্মকর্তাকে বেদম মারপিট করে।

খবর পেয়ে বগুড়া সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তীর নেতৃত্বে সদর থানার ওসি বিপুল সংখ্যক ফোর্স নিয়ে সেখানে আসলে ভক্তরা লাঠিসোঁটা নিয়ে পুলিশের ওপর চড়াও হন। পরে পুলিশ দরজা ভেঙে বাড়িতে প্রবেশ করে ২৪ জনকে আটক করে। এছাড়া ঘটনাস্থলে উপস্থিত বেশ কয়েকজন নারীভক্তকে স্থানীয় কাউন্সিলর সৈয়দ সার্জিল আহমেদ টিপু ও তরুণ চক্রবর্তীর জিম্মায় দেয় পুলিশ।

বৃহস্পতিবার এই ঘটনায় উপশহর ফাঁড়ির উপ পরিদর্শক (এসআই) আবদুল গফুর বাদী হয়ে দায়িত্ব পালনকালে পুলিশের ওপর হামলার অভিযোগে গ্রেফতার ২৪ জনের নাম উল্লেখসহ ১৭৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

এসআই আবদুল গফুর জানান, গ্রেফতার ২৪ জনের নাম উল্লেখ করে আরও অজ্ঞাত ১৫০ জনের বিরুদ্ধে সরকারি কাজে বাধা ও পুলিশকে মারধরের অভিযোগে মামলা হয়েছে।