• রবিবার, অক্টোবর ২৪, ২০২১
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৪:৪১ বিকেল

বনের পথে দ্রুতগতির গাড়ি, প্রাণ গেল ‘বিপন্ন’ বাঘডাশের

  • প্রকাশিত ০৫:২৫ সন্ধ্যা ডিসেম্বর ২৫, ২০২০
বাঘডাশ-বন্যপ্রাণী
দ্রুতগতির প্রাইভেট কারের চাপায় বিপন্ন বন্যপ্রাণীটির মৃত্যু হয়। মো. মোরসালিন সৈকত/সৌজন্য

রাস্তাটি বনের ভেতর দিয়ে গেলেও তাতে গতিসীমা নির্ধারণ করে দেওয়া হয়নি, বসানো হয়নি স্পিড ব্রেকার বা সতর্কীকরণ কোনো সাইনবোর্ড। ফলে দ্রুতগতির যানবাহনের চাপায় রাস্তাটিতে প্রায়ই বন্যপ্রাণীর মৃত্যু হয়

গাজীপুরের জয়দেবপুর এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় একটি বাঘডাশের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৪ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় জয়দেবপুরের গজারি বনের ভেতর দিয়ে যাওয়া ভুরুলিয়া সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। 

দুর্ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও বন্যপ্রাণী আলোকচিত্রী মো. মোরসালিন সৈকত ঢাকা ট্রিবিউনকে জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বন্ধুর সঙ্গে মোটরসাইকেলে করে গজারি বনের রাস্তা ধরে যাচ্ছিলেন। এ সময় একটি বাঘডাশ সড়ক পার হচ্ছিল। কিন্তু দ্রুতগতির একটি প্রাইভেট কার সেটিকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই বাঘডাশটির মৃত্যু হয়। 

তিনি বলেন, “প্রাণীটিকে বাঁচানোর চেষ্টা করেও কোনো লাভ হয়নি।”


আরও পড়ুন - রাস্তার পাশে পড়ে ছিল বাঘডাশটির মৃতদেহ


পরে শুক্রবার সকালে খবর পেয়ে বন বিভাগের ডিভিশন অফিসের লোকেরা বাঘডাশটির মৃতদেহ উদ্ধার করে নিয়ে যায়। 

স্থানীয়দের ভাষ্য, রাস্তাটি বনের ভেতর দিয়ে গেলেও তাতে গতিসীমা নির্ধারণ করে দেওয়া হয়নি, বসানো হয়নি স্পিড ব্রেকার বা সতর্কীকরণ কোনো সাইনবোর্ড। ফলে দ্রুতগতির যানবাহনের চাপায় রাস্তাটিতে প্রায়ই বন্যপ্রাণীর মৃত্যু হয়।   

গত বছরের ৩০ নভেম্বর একই এলাকায় গড়িচাপায় আরও একটি বাঘডাশের মৃত্যু হয়েছিল। মো. মোরসালিন সৈকত/সৌজন্য

বিষয়টি জানতে, বন বিভাগের জয়দেবপুর ডিভিশন অফিসের কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও কাউকে পাওয়া যায়নি।  

তবে ওই অফিসের বনপ্রহরী আহসানউল্লাহ, বাঘডাশটার মৃতদেহ উদ্ধারের বিষয়টি ঢাকা ট্রিবিউনকে নিশ্চিত করেছেন। 

এদিকে, ঢাকা ট্রিবিউনের হাতে আসা মৃত বন্যপ্রাণীর ছবিটি পাঠানো হয় বাংলাদেশ বন বিভাগের বন্যপ্রাণী ও জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ কর্মকর্তা জোহরা মিলাকে। ছবি দেখে তিনি ওই বন্যপ্রাণীটিকে বড় বাঘডাশ বা বাঘডাসা (Large Indian civet) বলে চিহ্নিত করেন।


আরও পড়ুন - ‘মহাবিপন্ন’ শকুনটিকে ধরে পেটাচ্ছিল শিশুরা


তিনি বলেন, “বাঘডাশকে গন্ধগোকুল অথবা খাটাশও বলা হয়ে থাকে। এরা নিশাচর ও বৃক্ষচারী প্রাণী। বাঘডাশ মূলত মাংসাশী, তবে ফলমূলও খায়। এদের গায়ের রং হালকা বাদামি, গলা ও লেজে সাদা ডোরাকাটা দাগ থাকে। এরা লম্বায় ৩ থেকে সাড়ে ৩ ফুট এবং ওজনে ৫ থেকে ১০ কেজি পর্যন্ত হয়ে থাকে। সাধারণত মাটিতে গর্ত করে বাসা বানায় এই প্রাণীটি।”

তিনি আরও বলেন, “একসময় প্রাণীটির সারা বাংলাদেশেই বিচরণ করতো। কিন্তু খাদ্যের অভাব, আবাসস্থল ও বনজঙ্গল ধ্বংস ইত্যাদি কারণে এটি আশঙ্কাজনক হারে কমে গেছে। আন্তর্জাতিক প্রকৃতি ও প্রাকৃতিক সম্পদ সংরক্ষণ সংঘের (আইইউসিএন) রেড লিস্ট গ্রন্থে এটিকে বিপন্ন তালিকায় রাখা হয়েছে। বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা আইন-২০১২ অনুযায়ী এই প্রাণীটি সরংক্ষিত।”


আরও পড়ুন - কুমির ভেবে আটকে রাখা হয়েছিল ‘মহাবিপন্ন’ ঘড়িয়াল


আরও পড়ুন - বন বিভাগের সহযোগিতায় হাতি হত্যার অভিযোগ


আরও পড়ুন - খরগোশ শিকারিদের হাতে প্রাণ গেল মেছোবাঘের

54
Facebook 50
blogger sharing button blogger
buffer sharing button buffer
diaspora sharing button diaspora
digg sharing button digg
douban sharing button douban
email sharing button email
evernote sharing button evernote
flipboard sharing button flipboard
pocket sharing button getpocket
github sharing button github
gmail sharing button gmail
googlebookmarks sharing button googlebookmarks
hackernews sharing button hackernews
instapaper sharing button instapaper
line sharing button line
linkedin sharing button linkedin
livejournal sharing button livejournal
mailru sharing button mailru
medium sharing button medium
meneame sharing button meneame
messenger sharing button messenger
odnoklassniki sharing button odnoklassniki
pinterest sharing button pinterest
print sharing button print
qzone sharing button qzone
reddit sharing button reddit
refind sharing button refind
renren sharing button renren
skype sharing button skype
snapchat sharing button snapchat
surfingbird sharing button surfingbird
telegram sharing button telegram
tumblr sharing button tumblr
twitter sharing button twitter
vk sharing button vk
wechat sharing button wechat
weibo sharing button weibo
whatsapp sharing button whatsapp
wordpress sharing button wordpress
xing sharing button xing
yahoomail sharing button yahoomail