• বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২১
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫৮ সকাল

‘কবরে আরবি হরফের ছাপ ভূ-কম্পনের ফল’

  • প্রকাশিত ০৯:০৩ রাত জানুয়ারি ১৫, ২০২১
কুড়িগ্রাম
কবর খুঁড়তে গিয়ে এমন ছাপ স্পষ্ট হয়ে ওঠে। ঢাকা ট্রিবিউন

কবরে ‘আরবি হরফের ছাপের’ খবর গণমাধ্যমে প্রকাশ হলে সম্প্রতি ওই কবরের আশেপাশের মাটি পরীক্ষা করতে যান জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতাত্ত্বিক বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. সাখাওয়াত হোসেন

সম্প্রতি কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার সদর ইউনিয়নের পশ্চিম পানিমাছকুটি গ্রামে এক ব্যক্তির দাফনের উদ্দেশে খনন করা কবরের গায়ের মাটিতে ভেসে ওঠা “আরবি হরফের ছাপ” মূলত ভূ-কম্পনের ফলে সৃষ্ট চিহ্ন বলে মত দিয়েছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতাত্ত্বিক বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. সাখাওয়াত হোসেন। 

ঢাকা ট্রিবিউনসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরের সূত্র ধরে সম্প্রতি ফুলবাড়ীর ওই কবরের পাশের মাটি নিয়ে পরীক্ষা করে প্রাথমিকভাবে এটি নিশ্চিত হওয়া গেছে বলে জানিয়েছে অধ্যাপক ড. মো. সাখাওয়াত হোসেন। 

গত ৭ জানুয়ারি সকালে উপজেলার সদর ইউনিয়নের পশ্চিম পানিমাছকুটি গ্রামের ইসরাঈল হোসেনের মৃত্যু হলে দাফনের উদ্দেশে তার বাড়ির পাশে কবর খনন করা হয়। কবর খননের সময় স্থানীয় একটি মাদ্রাসার শিশু শিক্ষার্থী প্রথম কবরের গায়ে মাটিতে আরবি হরফের ছাপ দেখতে পেয়ে কবর খননকারী আব্দুল বারী ও আমির আলীকে জানায়। 

স্থানীয় আলেমরা জানান, কবরের গায়ের এক পাশে আরবি হরফে বিসমিল্লাহ, ইয়া ও শিন লেখার হরফের ছাপ এবং অপর পাশে মিম, হা এবং মিম হরফের ছাপ দেখা গেছে। মহূর্তেই এই খবর ছড়িয়ে পড়লে বিভিন্ন প্রান্ত থেকে উৎসুক মানুষের ঢল নামে। পরে স্থানীয় প্রশাসন খবর পেয়ে শৃঙ্খলা রক্ষায় ওই কবরে পাশে পুলিশ মোতায়েন করে। এ নিয়ে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রচার হলে সম্প্রতি ওই কবরের আশেপাশের মাটি পরীক্ষা করতে যান জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতাত্ত্বিক বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. সাখাওয়াত হোসেন।

গত ১২ ও ১৩ জানুয়ারি অধ্যাপক মো. সাখাওয়াত হোসেন তার বিভাগের স্নাতকোত্তর শ্রেণির এক শিক্ষার্থীসহ কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলায় আলোচিত সেই কবর ও এর আশেপাশের এলাকা পরিদর্শন করে মাটির নমুনা সংগ্রহ করেন। প্রাথমিক গবেষণা শেষে তিনি নিশ্চিত হন যে ওই কবরে সৃষ্ট “আরবি হরফের মতো চিহ্ন” মূলত সাম্প্রতিক কোনও সময়ে ঘটে যাওয়া ভূমিকম্পের ফলে সৃষ্ট মাটির একধরনের পরিবর্তন। এ নিয়ে তিনি মুঠোফোনে ঢাকা ট্রিবিউনের সাথে কথা বলেছেন।

অধ্যাপক ড. মো. সাখাওয়াত হোসেন বলেন, “প্রাথমিকভাবে আমরা মনে করছি এটা ভূমিকম্পের সাথে জড়িত কোনও চিহ্ন। পরে আরও গবেষণা করে জানা যাবে ঠিক কতদিন আগে সেখানে ভূমিকম্প হয়েছিল।”

সম্প্রতি ওই কবরের মাটি পরীক্ষা করতে যান জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতাত্ত্বিক বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. সাখাওয়াত হোসেন।  ঢাকা ট্রিবিউন


কুড়িগ্রাম তথা বাংলাদেশের উত্তারাঞ্চল দেশের সর্বাধিক ভূমিকম্পন প্রবণ এলাকা উল্লেখ অধ্যাপক সাখাওয়াত হোসেন বলেন, “ওই বাড়ির লোকজনসহ স্থানীয়রা আমাদের জানিয়েছেন, দুই তিন বছর আগে ওই এলাকায় ভূমিকম্প হয়েছিল। আর যে মাটিটাতে (কবরের জমি) চিহ্ন পাওয়া গেছে সে মাটিগুলো চার পাঁচ বছর আগে ওই বাড়ির মালিক অন্যত্র থেকে এনে ওইখানে ভরাট করেছিল। ফলে নরম মাটি হওয়ায় ভূমিকম্পে সেগুলোর পরিবর্তন হওয়া স্বাভাবিক।”


আরও পড়ুন - কবরে ‘আরবি হরফের’ ছাপ, ভিড় সামলাতে পুলিশ মোতায়েন


কবরের গায়ের মাটিতে আরবি হরফের ন্যায় চিহ্ন সম্পর্কে ভূতাত্ত্বিক এই গবেষক বলেন, “প্রকিৃতিতে যখন প্রাকৃতিকভাবে কোনও একটা জিনিস ঘটে তখন তার আকৃতি সব জায়গায় একই রকম হবে না। একেক জায়গায় একেক রকম হবে। সেটা নির্ভর করবে ওই এলাকার ভূ-স্তরের পুরুত্ব কত, ভূ-কম্পন স্থল থেকে ওই জায়গার দূরত্ব কত, কত মাত্রার কম্পন ওই এলাকায় হয়েছিল, ভূ-স্তরে পানির পিটে কী পরিমাণ পানি ছিল, সেখানে সিডিমেন্টের সাইজ কেমন, কতক্ষণ ধরে তার মধ্যে কম্পন তৈরি হয়েছে, কত গভীরে সেটা ঘটেছে এ রকম অসংখ্য কারণ হয়েছে। একেকটা ভেরিয়েবলের চেঞ্জের কারণে আকৃতির এককটা রূপ আসে। আকৃতিগুলোকে আপনি কিসের সাথে তুলনা করবেন তা দৃষ্টিভঙ্গির ওপর নির্ভর করে।”

আরবি হরফের আকৃতি ধারণা করে স্থানীয়দের দাবির বিষয়ে এই গবেষক বলেন, “ওই চিহ্নগুলোর সবগুলোই আরবি হরফের মতো নয়। দৃষ্টিভঙ্গির ওপর নির্ভর করবে আপনি চিহ্নগুলোকে কিসের সাথে তুলনা করে বিবেচনা করবেন। আমার যতটুকু ধারণা, আমি প্রাথমিকভাবে মনে করছি এটা ভূমিকম্পের ফলে সৃষ্টি হয়েছে। নরম পলিমাটির মধ্যে যদি পানি থাকে তার একধরনের বিচ্যুতি হয়। সেই বিচ্যুতির ফলে প্রাথমিকভাবে যে চিহ্ন তৈরি হয় সেটাই এরকম (আরবি হরফ বা বিভিন্ন চিহ্ন) আকৃতির হয়। চিহ্নগুলোকে আপনি মনে মনে কিছুর সাথে তুলনা করলে আপনার কাছে সেটা সেরকমই মনে হতে পারে।”

চিহ্নগুলো ভূমিকম্পের সাথে সম্পর্কিত নিশ্চিত করে এই গবেষক বলেন, “আমাদের সংগ্রহকৃত নমুনার মাটিগুলোর বয়স কত এবং ওই আকৃতির কারণে মাটির কতটুকু পরিবর্তন হয়েছে তা নির্ণয় করতে কিছুটা সময় লাগবে। তবে আপনি যদি জিজ্ঞাসা করেন এটা ভূ-কম্পনের সাথে জড়িত কিনা, তাহলে আমি বলবো এটা নিশ্চিত ভাবে ভূ-কম্পনের সাথে জড়িত।”

50
Facebook 50
blogger sharing button blogger
buffer sharing button buffer
diaspora sharing button diaspora
digg sharing button digg
douban sharing button douban
email sharing button email
evernote sharing button evernote
flipboard sharing button flipboard
pocket sharing button getpocket
github sharing button github
gmail sharing button gmail
googlebookmarks sharing button googlebookmarks
hackernews sharing button hackernews
instapaper sharing button instapaper
line sharing button line
linkedin sharing button linkedin
livejournal sharing button livejournal
mailru sharing button mailru
medium sharing button medium
meneame sharing button meneame
messenger sharing button messenger
odnoklassniki sharing button odnoklassniki
pinterest sharing button pinterest
print sharing button print
qzone sharing button qzone
reddit sharing button reddit
refind sharing button refind
renren sharing button renren
skype sharing button skype
snapchat sharing button snapchat
surfingbird sharing button surfingbird
telegram sharing button telegram
tumblr sharing button tumblr
twitter sharing button twitter
vk sharing button vk
wechat sharing button wechat
weibo sharing button weibo
whatsapp sharing button whatsapp
wordpress sharing button wordpress
xing sharing button xing
yahoomail sharing button yahoomail