• শনিবার, মে ০৮, ২০২১
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:৫০ রাত

আপেল কুল চাষে ভাগ্যবদল নজরুলের

  • প্রকাশিত ০৪:৩৬ বিকেল মার্চ ৫, ২০২১
কুড়িগ্রাম
আপেল বাগান দিয়ে স্বাবলম্বী নজরুল। আপেল কুল দিয়েই সব কূল (জীবনের অধ্যায়) জয় করছেন তিনি। ঢাকা ট্রিবিউন

তার বাগানে আপেল কুলের ফলন দেখে খোদ কৃষি বিভাগও চোখ কপালে তুলেছে। প্রায় চারশ’টি গাছে ঝুলছে লাখ লাখ টাকার আপেল কুল!

২০১১ সাল,  নজরুল ইসলাম তখন একাদশ শ্রেণির ছাত্র। স্থানীয় একটি কলেজের পাশে আপেল কুলের (বড়ই) বাগান দেখে তারও শখ জাগে কুলের বাগান করার। বাগান মালিকের কাছে নিজের ইচ্ছের কথা জানালে ইতিবাচক সাড়াও মেলে, মেলে পরামর্শ। 

কিশোর মনের সেই বাসনা বাস্তবায়ন করতে আর বিলম্ব করেননি নজরুল। সে বছরই পৈত্রিক জমিতে ৭৫টি রাজশাহী আপেল কুল জাতের বড়ই চারা দিয়ে বাগান শুরু করেন কিশোর নজরুল। আর পেছনে ফিরতে হয়নি। 

ব্রহ্মপুত্র নদ দ্বারা জেলার মূল ভূখন্ড থেকে বিচ্ছিন্ন কুড়িগ্রামের রাজীবপুর উপজেলার সদর ইউনিয়নের বদরপুর গ্রামে নজরুল ইসলামের বাড়ি। ওই গ্রামের আছির উদ্দিন- সুন্দরী খাতুন দম্পতির ছেলে তিনি। নজরুলের কুল বাগান এখন এলাকায় দৃষ্টান্ত তৈরি করছে।

বর্তমানে স্নাতকোত্তর (মাস্টার্স) পরীক্ষার্থী নজরুল বিয়ে করে ঘর সংসার শুরু করেছেন এই আপেল কুল বিক্রির উপার্জন দিয়েই। ছাত্রাবস্থায় বাগানের কুল বিক্রি করে নিজের পড়াশোনার খরচ মিটিয়ে পরিবারকে সহায়তা করেছেন, বছর বছর কিনছেন জমিও।

আপেল কুল দিয়েই সব কূল (জীবনের অধ্যায়) জয় করছেন নজরুল। এটা কোনও কল্পকাহিনী নয়। 

তার বাগানে আপেল কুলের ফলন দেখে খোদ কৃষি বিভাগও কপালে চোখ তুলেছে। প্রায় চারশ’টি বড়ই গাছে ঝুলছে লাখ লাখ টাকার আপেল কুল! 

নজরুল ইসলাম জানান, ২০১১ সালে মাত্র ৭৫টি রাজশাহী আপেল কুলের গাছ দিয়ে তার বাগানের শুরু। সেসব গাছ থেকে প্রতিবছর গাছ প্রতি প্রায় ৩ মণ করে (পুরো বাগানে ৯ টন) আপেল কুলের ফলন পেতেন তিনি। এরপর ইউটিউবে শায়েখ সিরাজের একটি প্রতিবেদনে কাশ্মিরি আপেল কুল নিয়ে প্রতিবেদন দেখে অনুপ্রাণিত হন তিনি। 

২০২০ সালে যশোর থেকে ৩২০টি কাশ্মিরী আপেল কুলের চারা ক্রয় করে সেই চারায় বাগান সম্প্রসারিত করেন নজরুল। মাত্র ১০ মাসে সেই ৩২০টি চারা এখন ফলে পরিপূর্ণ। প্রতিটি গাছে প্রায় ৪০-৪৫ কেজি কাশ্মিরী আপেল কুলের ফলন হয়েছে বলে জানান নজরুল। 

নজরুল বলেন,  "রাজশাহী আপেল কুলের গাছগুলো বেশ বড় আকারের হয়। কিন্তু কাশ্মিরী আপেল কুলের গাছ অনেক ছোট। উভয় জাতের ফলন অত্যন্ত বেশি। রাজশাহী আপেল কুলের প্রতি গাছে প্রায় তিন মণ করে এবং কাশ্মিরী আপেল কুলের প্রতি গাছে ৪০-৪৫ কেজি করে ফলন পাওয়া যাচ্ছে। সে হিসেবে এ বছর বাগানে প্রায় সাড়ে ২১ টন আপেল কুলের ফলন পাওয়ার প্রত্যাশা করছি।" 

ইতোমধ্যে ফল বিক্রিও শুরু করেছেন বলে জানান এই উদ্যোক্তা।  রাজশাহী আপেল কুল ১৬শ’ টাকা মণ এবং কাশ্মিরি আপেল কুল ১৫শ’ টাকা মণ বিক্রি হচ্ছে। সে হিসেবে এবার বাগান থেকে প্রায় সাড়ে ৮ লাখ টাকা উপার্জন হবে বলে আশা করছেন নজরুল।

বাগানে গাছের পরিচর্যা সহজ ও খরচ অত্যন্ত কম জানিয়ে নজরুল বলেন, "চারার মূল্য বাদে এ বছর আমার বাগানে সেচ, সার, কীটনাশক ও শ্রমিকসহ মোট সর্বোচ্চ ৪০ হাজার টাকা ব্যয় হতে পারে। কিন্তু মুনাফার পরিমাণ অনেক বেশি।" 

বেকারদের জন্য আপেল কুল চাষ কতটা সহজসাধ্য, এমন প্রশ্নে ব্রহ্মপুত্র অববাহিকার এই সফল উদ্যোক্তা বলেন,  "কুল বাগানে তেমন কোনও পরিশ্রম নেই, খরচও অত্যন্ত কম। এটা উপার্জনের অনেক সহজ একটা উপায়। কুল বাগান যে করতে পারবে না তার দ্বারা কোনও কাজই করা সম্ভব না।" 

নজরুলের নিজ উদ্যোগ ও প্রচেষ্টায় তার বাগানে সফলতা এলেও বর্তমানে উপজেলা কৃষি অফিসের কর্মকর্তারা নিয়মিত তার বাগানের খোঁজ রাখছেন। নজরুলের আপেল কুল বাগানের সফলতায় তার উদ্যোগকে সমর্থন ও উৎসাহ দিতে সম্প্রতি তাকে মাল্টা প্রদর্শনী বাগানের জন্য ১২০টি মাল্টা চারা দিয়েছে উপজেলা কৃষি বিভাগ। 

রাজীবপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা গোলাম রায়হান বলেন, "নজরুলের সফলতায় আমরা বিস্মিত। জেলার চরাঞ্চলের তুলনামূলক উঁচু জমিতে আপেল কুলের চাষ অনেক বেকার যুবকের আয়ের অন্যতম মাধ্যম হতে পারে। নজরুলের বাগান সেরকমই একটি দৃষ্টান্ত।"

50
Facebook 50
blogger sharing button blogger
buffer sharing button buffer
diaspora sharing button diaspora
digg sharing button digg
douban sharing button douban
email sharing button email
evernote sharing button evernote
flipboard sharing button flipboard
pocket sharing button getpocket
github sharing button github
gmail sharing button gmail
googlebookmarks sharing button googlebookmarks
hackernews sharing button hackernews
instapaper sharing button instapaper
line sharing button line
linkedin sharing button linkedin
livejournal sharing button livejournal
mailru sharing button mailru
medium sharing button medium
meneame sharing button meneame
messenger sharing button messenger
odnoklassniki sharing button odnoklassniki
pinterest sharing button pinterest
print sharing button print
qzone sharing button qzone
reddit sharing button reddit
refind sharing button refind
renren sharing button renren
skype sharing button skype
snapchat sharing button snapchat
surfingbird sharing button surfingbird
telegram sharing button telegram
tumblr sharing button tumblr
twitter sharing button twitter
vk sharing button vk
wechat sharing button wechat
weibo sharing button weibo
whatsapp sharing button whatsapp
wordpress sharing button wordpress
xing sharing button xing
yahoomail sharing button yahoomail