• শুক্রবার, অক্টোবর ২২, ২০২১
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৮:৫৭ রাত

কঠোর হচ্ছে কর্তৃপক্ষ, অধিদপ্তরের তালিকায় রাজধানীর ৩৫০০ মাদক ব্যবসায়ী

  • প্রকাশিত ০৭:১৫ রাত সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২১
মাদক ইয়াবা
রাজধানীর মোহাম্মদপুর এবং ধানমন্ডি এলাকায় মাদক অভিযান চালিয়ে ৫৬০ গ্রাম ‘ক্রিস্টাল মেথ’ এবং ১২০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট জব্দ করেছে পুলিশ, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ ফোকাস বাংলা

সরকারের ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দমন অভিযান সত্ত্বেও মাদকের ব্যবসা পুরোদমে চলছে

মাদক ব্যবসা বন্ধ করতে রাজধানীর প্রায় সাড়ে তিন হাজার মাদক ব্যবসায়ীর একটি তালিকা করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর।

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) অধিদপ্তরের অতিরিক্ত পরিচালক ফজলুর রহমান এক বিজ্ঞপ্তিতে গণমাধ্যমকে বলেন, “তালিকায় যারা আছে তাদের কঠোরভাবে পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। আমরা যত দ্রুত সম্ভব তাদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা করছি।” 

বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) রাতে একটি ক্রিস্টাল মেথ বা “আইস” চক্রকে গ্রেপ্তারের বিষয়ে গণমাধ্যমকে ব্রিফ করার সময় তিনি এ কথা জানান। 

তিনি বলেন, “ইয়াবা ব্যবসায়ীরা মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে ক্রিস্টাল মেথামফেটামিন (আইস) নিয়ে আসছে। এছাড়া, আইস বিক্রেতাদের অধিকাংশই উচ্চশিক্ষিত, পাশাপাশি তারা ধনী পরিবার থেকে এই পথে এসেছে।”

সম্প্রতি পুলিশ রাজধানীর মোহাম্মদপুর ও ধানমন্ডিতে অভিযান চালিয়ে ৫৬০ গ্রাম ক্রিস্টাল মেথ এবং ১,২০০টি ইয়াবা ট্যাবলেটসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে বলে তিনি জানান।

গ্রেপ্তাররা হলেন- জাকারিয়া আহমেদ আমান (৩২), তারেক আহমেদ (৫৫), সাদ্দাম হোসেন (৩১), শহিদুল ইসলাম খান (৪৮) এবং জসিম উদ্দিন (৫০)।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত পরিচালক ফজলুর রহমান রাজধানীর তেজগাঁওয়ে ডিএনসির প্রধান কার্যালয়ে গণমাধ্যমের সামনে বক্তব্য রাখছেন, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১। ফোকাস বাংলা

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ফজলুর রহমানের বলেন, গ্রেপ্তারদের মধ্যে দুজনকে বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) আদালতে হাজির করা হয়েছে এবং বাকিদের শুক্রবার নেওয়া হচ্ছে। 

তিনি আরও বলেন, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ বিভাগ গত বছরও তিন হাজার মাদক ব্যবসায়ীর তালিকা তৈরি করেছিল। 

কেন মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে না জানতে চাইলে তিনি উত্তর দেন, “প্রমাণের অভাবে সবাইকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব নয়। কারণ তারা সরাসরি ডিল করে না। বরং টাকা দিয়ে র‍্যাকেট নিয়ন্ত্রণ করে।” 

গত দুই দশক ধরে দেশে ফেনসিডিলের জায়গা দখল করে নিয়েছে মেথামফেটামিন-ভিত্তিক মাদক ইয়াবা। এর আগে, সরকার আশির দশকে আফিম ও গাঁজা সেবন নিষিদ্ধ করেছিল। 

তবে সরকারের “জিরো টলারেন্স” নীতি এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দমন অভিযান সত্ত্বেও মাদকের ব্যবসা, বিশেষ করে ইয়াবার ব্যবসা পুরোদমে চলছে। আর সহজ বহনযোগ্যতার কারণে মিয়ানমার থেকে আসা ইয়াবা বাংলাদেশের যুব সমাজে দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়েছে।

২০১৮ সালে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ইয়াবা ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে কঠোর অভিযান চালিয়েছিল যার ফলে বেশ কয়েকটি “বন্দুকযুদ্ধের” ঘটনাও ঘটেছিল। 

বন্দুকযুদ্ধ যখন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে সমালোচনার মুখে ফেলছিল সেই সময়ে ইয়াবা ব্যবসা পুরোদমে চলতে থাকে। 

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর মতে, করোনাভাইরাস মহামারি দেশে মাদকের ব্যবসা কমিয়ে দিলেও এখন মাদক ব্যবসায়ীরা আগের চেয়ে বেশি সক্রিয়, এলএসডি এবং ক্রিস্টাল মেথের মতো মাদক নিয়ে। 

বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা, ক্রিস্টাল মেথের চক্রগুলোর ক্রমবর্ধমান গ্রেপ্তারের সঙ্গে শিগগিরই এই মাদকটি যুব সমাজের ধ্বংসের পরবর্তী হাতিয়ার হিসেবে ইয়াবার জায়গা দখল করবে।

50
Facebook 50
blogger sharing button blogger
buffer sharing button buffer
diaspora sharing button diaspora
digg sharing button digg
douban sharing button douban
email sharing button email
evernote sharing button evernote
flipboard sharing button flipboard
pocket sharing button getpocket
github sharing button github
gmail sharing button gmail
googlebookmarks sharing button googlebookmarks
hackernews sharing button hackernews
instapaper sharing button instapaper
line sharing button line
linkedin sharing button linkedin
livejournal sharing button livejournal
mailru sharing button mailru
medium sharing button medium
meneame sharing button meneame
messenger sharing button messenger
odnoklassniki sharing button odnoklassniki
pinterest sharing button pinterest
print sharing button print
qzone sharing button qzone
reddit sharing button reddit
refind sharing button refind
renren sharing button renren
skype sharing button skype
snapchat sharing button snapchat
surfingbird sharing button surfingbird
telegram sharing button telegram
tumblr sharing button tumblr
twitter sharing button twitter
vk sharing button vk
wechat sharing button wechat
weibo sharing button weibo
whatsapp sharing button whatsapp
wordpress sharing button wordpress
xing sharing button xing
yahoomail sharing button yahoomail