বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন সিলেট, মোমবাতির সংকট

অনেক এলাকায় এখন মোমবাতির আলোই ভরসা

বিদ্যুৎ কেন্দ্রে বন্যার পানি প্রবেশ করায় শনিবার দুপুর ১২টার পর থেকে পুরো সিলেট বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। অনেক এলাকায় এখন মোমবাতির আলোই ভরসা। এরই মধ্যে সেসব এলাকায় এখন মোমবাতির সংকট সৃষ্টি হয়েছে। বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে মোমবাতি ও দেশলাই সংগ্রহ করেছে অনেকে।

শুক্রবার (১৭ জুন) রাতে সিলেট নগরের রিকাবীবাজার এলাকায় মোমবাতি কিনতে আসেন ঘাসিটুলা এলাকার বাসিন্দা রাবেয়া খাতুন এবং তার স্বামী। তারা বেশ কয়েকটি মুদিদোকানে মোমবাতির খোঁজ করলেও না পেয়ে অবশেষে রিকাবীবাজারে এসেছেন।

রিকাবীবাজারের ব্যবসায়ী মো. জসিম আহমদ সংবাদমাধ্যম প্রথম আলোকে বলেন, “বন্যার কারণে মোমবাতি ও দেশলাইয়ের চাহিদা বেড়ে গেছে। অনেকেই দুই থেকে তিন প্যাকেট করে মোমবাতি কিনে নিয়ে যাচ্ছেন। তবে দাম বাড়েনি।”

সাব্বির আলম নামের একজন সংবাদমাধ্যমটিকে বলেন, “বিভিন্ন এলাকায় ঘুরেও মোমবাতি পাইনি। অবশেষে হজরত শাহজালাল (রহ.) মাজারের পাশে এসে মোমবাতি পেয়েছি।”

তিনি আরও বলেন, “নিরাপদ আশ্রয়ের জন্য বাসার সবাইকে স্বজনদের বাসায় পাঠিয়েছি। বাসায় মালামাল পাহারা দেওয়ার জন্য আমি এখানে অবস্থান করছি। বিদ্যুৎ না থাকায় রাতে মোমবাতি জ্বালিয়ে থাকতে হয়।”

এদিকে, সিলেট ও সুনামগঞ্জে প্রায় শতভাগ এলাকা বন্যার পানিতে ডুবে গেছে। শুক্রবার (১৭ জুন) সেনাবাহিনী পানিবন্দীদের উদ্ধারে নামে। পরে নামে নৌবাহিনীর সদস্যরাও। এখনো হাজার হাজার মানুষ নিরাপদ আশ্রয়ে পৌঁছাতে পারেননি। বিদ্যুৎ নেই, ফোনের নেটওয়ার্ক কাজ করছে না। এমন অবস্থায় অসহায় মানুষগুলোকে উদ্ধারে বেশ হিমশিম খেতে হচ্ছে।

ADVERTISEMENT

×