Friday, May 24, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

স্থলবন্দরগুলোতে দুর্নীতির ১৪ উৎস চিহ্নিত করেছে দুদক

দেশের স্থলবন্দরগুলো নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের অধীনে


আপডেট : ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৮:১৮ পিএম

নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের অধীনে থাকা দেশের স্থলবন্দরগুলোতে দুর্নীতির ১৪ উৎস চিহ্নিত করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

সংস্থাটি বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে সচিবালয়ে দুদক কমিশনার ড. মোজাম্মেল হক খান এ বিষয়ে একটি প্রতিবেদন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরীর কাছে হস্তান্তর করেন।

এসময় মোজাম্মেল হক সাংবাদিকদের বলেন, “স্থলবন্দরগুলোতে কীভাবে কোথায় দুর্নীতি হয় সে বিষয়ে আমরা ১৪টি উৎসের কথা বলেছি। সেইসাথে দুর্নীতি প্রতিরোধে ২৮টি সুপারিশমালা করেছি। সেগুলো মন্ত্রণালয় পর্যবেক্ষণ করে ব্যবস্থা নেবে।”

প্রতিবেদন গ্রহণ করে প্রতিমন্ত্রী খালিদ বলেন, “দুদকের সুপারিশমালা আমরা গ্রহণ করলাম। এগুলো পর্যবেক্ষণ করে ব্যবস্থা নেব। আমরা ইতোমধ্যে অনেক পদক্ষেপ নিয়েছি।”

“স্থলবন্দরগুলো শুধু এ মন্ত্রণালয় না, স্বরাষ্ট্রসহ আরও সংস্থা মিলে চালায়। সেখানে দুর্নীতি বন্ধে আমি ব্যবস্থা নেব। প্রধানমন্ত্রী দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা দিয়েছেন। আমরা এখানে দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতিতে কাজ করছি,” যোগ করেন তিনি।

দুর্নীতি প্রতিরোধের লক্ষ্যে দুদক গঠিত “বাংলাদেশ স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ (স্থলবন্দরসমূহ) এর দুর্নীতি সংক্রান্ত প্রাতিষ্ঠানিক টিম” অনুসন্ধান চালিয়ে সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদনটি প্রস্তুত করেছে।

About

Popular Links