Thursday, May 23, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

নাজিম উদ্দিন প্রসঙ্গে রিন্টু বিকাশ: সিনিয়রদের কাজে বাধা দেওয়ার অধিকার নেই

এর আগে ঢাকা ট্রিবিউন সাংবাদিক আরিফুল ইসলামকে সহকারী কমিশনার রিন্টু বিকাশ চাকমা নির্যাতন করেন বলে জানান আরডিসি নাজিম উদ্দিন

আপডেট : ১৭ মার্চ ২০২০, ০৩:৩৭ পিএম

কুড়িগ্রামের সদ্য সাবেক জেলা প্রশাসক (ডিসি) সুলতানা পারভীনের নির্দেশে মধ্যরাতে ঢাকা ট্রিবিউন সাংবাদিক আরিফুল ইসলামকে তুলে নিয়ে গিয়ে মিথ্যা মামলা দিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে সাজা দেয় জেলা প্রশাসন। সরকারি ক্ষমতার এমন অপব্যবহারে যুক্ত ছিলেন সিনিয়র সহকারী কমিশনার, রাজস্ব (আরডিসি) নাজিম উদ্দিন, সহকারী কমিশনার রিন্টু বিকাশ চাকমা ও এস এম রাহাতুল ইসলাম।

এই অপরাধে ইতোমধ্যে ডিসিসহ তাদের তিনজনকেই প্রত্যাহার করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে পরবর্তী পদায়নের জন্য ন্যস্ত করেছে সরকার। তবে আরডিসি নাজিম উদ্দিন সোমবার (১৬ মার্চ) দাবি করেছেন, সাংবাদিক আরিফকে তিনি নন, মারধর করেছেন সহকারী কমিশনার রিন্টু বিকাশ চাকমা।

নাজিম উদ্দিনের এমন দাবির পরিপ্রেক্ষিতে রিন্টু বিকাশের বক্তব্য জানতে চাওয়া হলে তিনি সরাসরি কিছুই বলতে রাজি হননি।


আরও পড়ুন - আরডিসি নাজিম: আমি না, রিন্টু বিকাশ মেরেছে


মুঠোফোনে তিনি ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, আমি শুধু বলব ধর্মের কল বাতাসে নড়ে। আমার দ্বারা কোনো একজন ম্যাজিস্ট্রেট এবং একজন মানুষ হিসেবে কারও গায়ে হাত তোলা সম্ভব না। আপনাদের কাছে ইতোমধ্যে ওই ঘটনার তথ্য-প্রমাণ রয়েছে। সেগুলোই আমার ভূমিকা প্রমাণ করবে। শুধু আরিফ কেন, কারও সঙ্গেই আমি কখনও খারাপ ভাষায় কথা বলি না। মারধর তো দূরের কথা। ডিসি অফিসে কর্মরত স্টাফ শুরু করে সাধারণ মানুষ, সবাই জানেন আমার সম্পর্কে।

ওই রাতে নাজিম উদ্দিন ও তার ভূমিকা সম্পর্কে রিন্টু আরও বলেন, সিনিয়র কর্মকর্তাদের কাজে বাধা দেওয়ার অধিকার আমাদের নেই আসলে। মারধর ও গালিগালাজের বিষয়ে নির্যাতিত আরিফ সাহেবই ভাল বলতে পারবেন। আপনারা চাইলে আমাদের পারিবারিক অবস্থান সম্পর্কে খোঁজ-খবর নিতে পারেন।


আরও পড়ুন - আরিফুলকে 'কলেমা পড়িয়ে এনকাউন্টারে' দিতে চান সহকারী কমিশনার!


সাংবাদিক আরিফের সঙ্গে থাকা মোবাইল ফোন, মানিব্যাগ, ঢাকা ট্রিবিউনের নামে ব্যাংক চেক কোথায় আছে জানতে চাইলে রিন্টু বিকাশ চাকমা বলেন, আপনি টেক্সট করে পুরো লিস্টটা দিন আমি খোঁজ নিয়ে দেখব। গণমাধ্যমের সামনে এই মুহূর্তে কথা বলার অনুমতি নেই বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

নিজের অবস্থান সম্পর্কে তিনি বলেন, আমার সম্পর্কে কুড়িগ্রামের মানুষের কাছে খোঁজ নিয়ে দেখুন। আমি ইতোমধ্যে কর্তৃপক্ষের কাছে আমার অবস্থান পরিষ্কার করেছি। কী হয়েছে, না হয়েছে তা কুড়িগ্রামবাসী জানেন আর আপনারাও জানেন।

প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার (১৩ মার্চ) দিবাগত গভীর রাতে ডিসি সুলতানার নির্দেশে সাংবাদিক আরিফুলকে নির্যাতন করে সিনিয়র সহকারী কমিশনার, রাজস্ব (আরডিসি) নাজিম উদ্দিন, সহকারী কমিশনার রিন্টু বিকাশ চাকমা ও এস এম রাহাতুল ইসলামসহ জেলা প্রশাসকের অনুগত অন্তত ৪০ জনের একটি দল।

About

Popular Links