Tuesday, May 21, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

‘করোনায় স্বেচ্ছাসেবী’র উদ্যোগে দুই শতাধিক পরিবারকে খাদ্য সহায়তা

‘করোনায় স্বেচ্ছাসেবী’ হতদরিদ্রদের পাশে দাঁড়াতে দেশের সকল জেলাকে ১৪টি অঞ্চলে বিভক্ত করে আঞ্চলিক সমন্বয়কারীদের মাধ্যমে জেলা ও উপজেলায় অসহায় পরিবারের কাছে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছে

আপডেট : ৩০ মার্চ ২০২০, ১০:২১ পিএম

করোনাভাইরাসের প্রভাবে দেশের খেটে খাওয়া দুস্থ ও অনাহারীদের পাশে দাঁড়িয়েছে ভোক্তা অধিকার সংস্থা “কনসাস কনজুমার্স সোসাইটি (সিসিএস)” ও এর যুব শাখা “কনজুমার ইয়ুথ বাংলাদেশ (সিওয়াইবি)”। সংস্থাটির উদ্যোগে “করোনায় স্বেচ্ছাসেবী” নামের একটি প্ল্যাটফর্ম দেশের ৬টি জেলায় প্রায় ২৪০টি পরিবারে এক সপ্তাহের খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিয়েছে।

সোমবার (৩০ মার্চ) করোনায় স্বেচ্ছাসেবীদের পক্ষ থেকে ঢাকার সাভারে ২৫টি রিক্সাচালক পরিবার, উত্তরায় ২৫টি, মেহেরপুরে দরিদ্র ১০০ পরিবার, খুলনার ৩০টি, কুড়িগ্রামে ৩০টি, চুয়াডাঙ্গার ৮টি ও সাতক্ষীরার ৩টি দিনমজুর, রিক্সা চালক ও হতদরিদ্রদের মাঝে নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়। এসব পরিবারকে এক সপ্তাহের চাল, ডাল, তেল, আলু, লবণ ছাড়াও কিছু পরিবারে মাস্ক ও সাবান সরবরাহ করা হয়।

করোনাভাইরাসের প্রার্দুভাবে খাদ্যাভাবে পড়া পরিবারগুলোকে সহযোগীতার জন্য সিসিএস-সিওয়াইবির করোনায় স্বেচ্ছাসেীদের সাথে পাশে দাঁড়িয়েছে অনলাইন শপিংমল “ইভ্যালি” ও “ব্র্যান্ড বাই.এক্সওয়াইজেড”। এছাড়া সমাজের বিত্তবান মানুষও করোনায় স্বেচ্ছাসেবীদের প্রতি সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন।

সিসিএস এর নির্বাহী পরিচালক ও করোনায় স্বেচ্ছাসেবীর উপদেষ্টা পলাশ মাহমুদ বলেন, “দেশের সব মানুষ এখন ঘরে অবস্থান করছেন। হতদরিদ্ররা এখন আরও অসহায় হয়ে পড়েছেন। আমাদের উচিৎ তাদের মুখে দু’মুঠো খাবার তুলে দেওয়া। আমরা দেশব্যাপী সকলের পাশেই দাঁড়ানোর চেষ্টা করছি। তবে সাধ্য খুবই সীমিত। আমি সমাজের বিত্তবানদের কাছে অনুরোধ জানাই আপনারা আমাদের সাথে অংশ নিন।”

প্রসঙ্গত, “করোনায় স্বেচ্ছাসেবী” হতদরিদ্রদের পাশে দাঁড়াতে দেশের সকল জেলাকে ১৪টি অঞ্চলে বিভক্ত করে কার্যক্রম চালাচ্ছে। প্রতিটি অঞ্চলে সমন্বয়কারীর মাধ্যমে জেলা ও উপজেলায় স্বেচ্ছাসেবীদের দিয়ে অসহায় পরিবারে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছে। প্রতিটি পরিবারের জন্য ৫০০ টাকা ব্যায়ে এক সপ্তাহের খাবার দেওয়া হচ্ছে। করোনায় স্বেচ্ছাসেবীদের বিকাশের মাধ্যমে (০১৯১৮৭৯৩৪৫৬ ও ০১৭২৩৬৩৬৩৪৪, পারর্সোনাল) সহযোগীতা করা যাবে।

About

Popular Links