Monday, May 20, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ধর্ষিত শিশুকে আহতাবস্থায় থানায় নিয়ে মায়ের আহাজারি, আটক ১

শিশুটির অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা

আপডেট : ১০ এপ্রিল ২০২০, ১০:২৭ এএম

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলায় ৯ বছরের একটি শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে।  ঘটনার পর মেয়েকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে আশুগঞ্জ থানায় গিয়ে বিচার চেয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন তার মা।

বৃহস্পতিবার (০৯ এপ্রিল) সন্ধ্যায় উপজেলার সোনারামপুরে ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটে।

ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে লিটন মিয়া (২৫) নামে অভিযুক্ত এক যুবককে আটক করা হয়েছে। তার বাড়ি কিশোরগঞ্জ জেলার অষ্ট্রগ্রাম উপজেলায়। আশুগঞ্জে একটি চাল কলে কাজ করে সে।

নির্যাতনের স্বীকার শিশুটির পরিবার ও হাসপাতালে সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার বিকেলে শিশুটি বাড়ির পাশে চাল কলের ভেতরে খেলাধুলা করছিল। কিছুক্ষণ পর তার বড় ভাইয়ের বন্ধু ও অন্য একটি চাল কলের শ্রমিক লিটন সেখানে আসে। শিশুটিকে একা পেয়ে ধানক্ষেতে নিয়ে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায় সে।

সন্ধ্যায় এক সহপাঠী শিশুটিকে রক্তাক্ত অবস্থায় ধানক্ষেতে পড়ে থাকতে দেখে স্বজনদের জানায়। খবর পেয়ে পরিবারের লোকজন শিশুটিকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

কিছুক্ষণ পর জানা যায়, অভিযুক্ত লিটন থানার সামনেই ঘোরাফেরা করছে। বিষয়টি পুলিশকে জানানো হলে তাৎক্ষণিক তাকে আটক করা হয়।

এ বিষয়ে আশুগঞ্জ-সরাইল সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মাসুদ রানা জানান, নির্যাতনের শিকার শিশুটি অভিযুক্ত যুবককে শনাক্ত করার পরেই তাকে আটক করা হয়েছে। শারীরিক পরীক্ষার জন্য শিশুটিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, শিশুটির অবস্থা আশঙ্কাজনক। প্রচুর রক্তক্ষরণ হচ্ছে। জরুরি ভিত্তিতে সংশ্লিষ্ট বিভাগের চিকিৎসককে ডেকে চিকিৎসা শুরু করা হয়েছে। অবস্থা আরও খারাপ হলে শিশুটিকে ঢাকায় পাঠানো হতে পারে।

উজ্জল চক্রবর্তী, ব্রাহ্মণবাড়িয়া

About

Popular Links