Friday, May 24, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

কৃষিখাতে ৫ হাজার কোটি টাকা প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর

রবিবার (১২ এপ্রিল) ৫% সুদে এ প্রণোদনা প্যাকেজটি ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

আপডেট : ১২ এপ্রিল ২০২০, ১১:২০ এএম

করোনাভাইরাসের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে কৃষিখাতে ৫% সুদে ৫ হাজার কোটি টাকা প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রবিবার (১২ এপ্রিল) সকাল ১০টায় গণভবন থেকে করোনাভাইরাসসৃষ্ট কোভিড-১৯ পরিস্থিতি নিয়ে এক ভিডিও কনফারেন্সে এ ঘোষণা দেন তিনি। 

কৃষি খাতের জন্য ৫ হাজার কোটি টাকার বিশেষ তহবিল তৈরি করবে বাংলাদেশ ব্যাংক জানিয়ে তিনি বলেন, “এই তহবিল থেকে কৃষি খাতে ‍যুক্তদের অল্প সুদে ঋণ দেওয়া হবে। ঋণে সুদের হার হবে সর্বোচ্চ ৫ শতাংশ। এ তহবিল থেকে গ্রাম এলাকার ক্ষুদ্র ও মাঝারি চাষিরা আর্থিক সহায়তা পাবেন।”

কৃষিখাতের জন্য বিশেষ এ প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করে তিনি বলেন, কৃষি, ফুল, ফল, মৎস্য চাষ, পোল্ট্রি ও ডেইরি খাতে যারা নিয়োজিত, তারা সবাই এই প্রণোদনার আওতায় আসবেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আমাদের মাটি অত্যন্ত উর্বর, আমরা যদি উদ্বৃত্ত উৎপাদন করতে পারি সেক্ষেত্রে অন্য দেশকে খাদ্য সহায়তা করতে পারবো, এমনকি রপ্তানিও করতে সক্ষম হবো।” এসময় প্রতিটি কৃষিজমি ব্যবহারের আহ্বানও জানান তিনি।

তিনি আরও বলেন, “কৃষি মন্ত্রণালয়কে ধান কাটা ও মাড়াই কাজে কৃষি যান্ত্রিকীকরণে এরই মধ্যে ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে, আরও ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়া হবে।” এছাড়া ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের জন্য বীজ-চারা বিতরণের জন্য ১৫০ কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়া হবে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী।

আগামী বছর বাজেটের সময় এজন্য ৯ হাজার কোটি টাকা ভর্তুকি দেওয়া হবে বলেও জানান তিনি। 

গতবছরের তুলনায় কৃষকদের কাছ থেকে আরও ২ লাখ মেট্রিক টন বেশি চাল ক্রয় করা হবে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “কিছুদিনের মধ্যে বোরো ধান উঠবে। কৃষক যেন এ ফসলের ন্যায্য দাম পায় সেদিকে লক্ষ্য রেখে খাদ্য মন্ত্রণালয় আরও বেশি ধান-চাল ক্রয় করবে।”

এসময় সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বর্তমানে কৃষিকাজ চালিয়ে যেতে হবে জানিয়ে তিনি বলেন, “আমরা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছি, মাঠে যাওয়ার সময় যেন কৃষকদের বাধা না দেওয়া হয়।”

এসময় প্রধানমন্ত্রী  খুলনা ও বরিশাল দুই বিভাগের জেলা প্রশাসক, সিভিল সার্জনসহ অন্যান্য কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলেন তিনি। ভিডিওটি কনফারেন্সটি বাংলাদেশ টেলিভিশন, বাংলাদেশ বেতার ও ফেসবুক পেজে সরাসরি সম্প্রচারিত হয়।

 এর আগে গত ৭ এপ্রিল চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের ১৫ জেলার প্রতিনিধি ও কর্মকর্তাদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্স করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে তিনি করোনাভাইরাস মোকাবিলার জন্য বিভিন্ন নির্দেশনা দেন। এছাড়া তিনি ২১টি জেলার কর্মকর্তাদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমেও কথা বলেন।

About

Popular Links