Wednesday, May 22, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ঈদের জামাত সীমাবদ্ধ রাখতে প্রধানমন্ত্রীর ইঙ্গিত

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘শোলাকিয়া প্রতিবছর বৃহত্তম ঈদের জামাত করতো, কিন্তু এ বছর হয়তো আমরা আগের মতো করতে পারব না’

আপডেট : ২০ এপ্রিল ২০২০, ০১:১৫ পিএম

করোনাভাইরাস মহামারির প্রার্দুভাবের কারণে এবার ঈদুল ফিতরের জামাত সীমাবদ্ধ রাখার ইঙ্গিত দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার (২০ এপ্রিল) সকালে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে ঢাকা ও ময়মনসিংহ বিভাগের আটটি জেলার জনপ্রতিনিধি ও কর্মকর্তাদের সাথে ভিডিও কনফারেন্সে বক্তব্য দেওয়ার সময় প্রধানমন্ত্রী এ ইঙ্গিত দেন।

বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বাংলাদেশ বেতারসহ বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল এবং রেডিও স্টেশনগুলো প্রধানমন্ত্রীর ভিডিও কনফারেন্সটি সরাসরি সম্প্রচার করেছে।

ভিডিও কনফারেন্সে কিশোরগঞ্জের একজন সরকারি কর্মকর্তার সঙ্গে আলাপকালে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “শোলাকিয়া প্রতিবছর বৃহত্তম ঈদের জামাত করতো, কিন্তু এ বছর হয়তো আমরা আগের মতো করতে পারব না।”

তিনি বলেন,  “বাড়িতে নামাজ পড়ুন এবং আমাদের সবার জন্য দোয়া করুন।”

এর আগে গত ১৬ এপ্রিল রমজান মাসে বাড়িতে তারাবীহ নামাজ পড়ার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, “তারাবীহ নামাজের বিষয়ে আমাদেরকে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের নির্দেশনা অনুসরণ করতে হবে। মসজিদের পরিবর্তে আপনাকে ঘরে বসে তা পড়তে হবে, কারণ এটি জনসমাবেশে সংক্রামিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।”


আরও পড়ুন -  প্রধানমন্ত্রী: ৬৪ জেলায় ত্রাণ কার্যক্রম পর্যবেক্ষণে ৬৪ সচিব


সরকার এর আগেই করোনভাইরাস সংক্রমণ ঠেকানোর জন্য সারাদেশে সমস্ত উপাসনালয় ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে জনসাধারণের জন্য প্রার্থনা স্থগিত করেছে। ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় গত এপ্রিল ৬ এ বিষয়ে একটি জরুরি নোটিশ জারি করে।

নোটিশে মন্ত্রণালয় বলেছে, শুক্রবার মুসলমানদের জুমার পরিবর্তে জোহরের নামাজ পড়তে বলা হয়েছে।

এছাড়া ইমাম, খতিব, মুয়াজ্জিনসহ মসজিদে পাঁচ জনের বেশি ব্যক্তি নামাজ পড়তে পারবেন না। তবে জুম্মার নামাজও অনুষ্ঠিত হতে পারে তবে সে ক্ষেত্রে জামাত অবশ্যই ১০ জনের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকবে।

করোনাভাইরাস বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১০টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে। গত ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের সর্বশেষ পরিসংখ্যান জানার অন্যতম ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, সোমবার (২০ এপ্রিল) সকাল পর্যন্ত কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়েছেন বিশ্বের ২৪ লাখ ৭ হাজার ৩৩৯ জন। অপরদিকে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ লাখ ৬০ হাজার ৭৫৮ জনে।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রবিবার (১৯ এপ্রিল) পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯১ জনে। এছাড়া এ পর্যন্ত মোট ২ হাজার ৪৫৬ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন বলে জানিয়েছে সরকার।

About

Popular Links