Tuesday, May 28, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

করোনাভাইরাস: সংজ্ঞা পরিবর্তনে বেড়ে গেছে সুস্থতার সংখ্যা

সুস্থতার সংজ্ঞা পাল্টানোয় মাত্র দুই দিনের ব্যবধানে সুস্থ হওয়া মানুষের সংখ্যা ছয়গুণ বেড়েছে


আপডেট : ০৪ মে ২০২০, ০৩:৪৪ পিএম

করোনাভাইরাসে  (কোভিড-১৯) আক্রান্ত ব্যক্তিদের সুস্থ হওয়ার সংজ্ঞা পাল্টিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। ফলে মাত্র দুই দিনের ব্যবধানে সুস্থ হওয়া ব্যক্তিদের সংখ্যা ছয়গুণ বেড়েছে।

জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) হিসেবে, গত শনিবার (০২ মে) পর্যন্ত দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সুস্থ হওয়ার সর্বমোট সংখ্যা ছিল ১৭৭ জন। 

কিন্তু রবিবার (০৩ মে) হঠাৎ সেই সংখ্যা ২৪ ঘন্টায় একলাফে ৮৮৬ বেড়ে সর্বমোট এক হাজার ৬৩ জনে দাঁড়ায়।

সোমবার (০৪ এপ্রিল) সুস্থ হওয়ার তালিকায় যোগ হয়েছে আরও ১৪৭ জন। সব মিলিয়ে এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ২১০ জন।

বিবিসির এক খবরে বলা হয়, আক্রান্ত হওয়ার পর কাদেরকে সুস্থ বলা হবে সেই বিষয়ে বাংলাদেশের ক্লিনিক্যাল ম্যানেজমেন্ট কমিটির দেওয়া একটি নতুন গাইডলাইন অনুসরণ করা হয়েছে।

ক্লিনিক্যাল ম্যানেজমেন্ট কমিটির সদস্য ডা. এম এ ফয়েজের বরাত দিয়ে বিবিসি বাংলা জানিয়েছে, আগের গাইডলাইন অনুযায়ী কেউ যদি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত হতেন তাহলে তার ১৪-২১ দিনের মধ্যে দ্বিতীয় টেস্ট করা হতো।

দ্বিতীয় টেস্টে যদি ফলাফল নেগেটিভ আসে তবে পরবর্তী ২৪ থেকে ৭২ ঘন্টার মধ্যে টেস্ট করানো হতো। তৃতীয় এই টেস্টে ফলাফল নেগেটিভ আসলে রোগীকে সুস্থ ঘোষণা করা হতো। সুস্থ ঘোষণার পর হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেওয়া সময় বলা হতো তিনি যেন আরও ১৪ দিন বাড়িতে কোয়ারেন্টিনে থাকেন।


আরও পড়ুন - করোনাভাইরাস: দেশে আক্রান্তের সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়ালো, মোট মৃত্যু ১৮২


তবে নতুন নিয়ম অনুযায়ী রোগী যদি দ্বিতীয় টেস্টে সুস্থ হয়ে ওঠেন এবং তারপর যদি পরপর ৩ দিন জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্ট না হয়, তবে তাকে হাসপাতালে না রেখে বাড়িতে ১৪ দিনের আইসোলেশনে পাঠিয়ে দেওয়া হবে।

বাড়ি থেকেই তার পরবর্তী দুটো পরীক্ষা করা হবে। যা আগে হাসপাতালে রেখে করা হতো। হাসাপাতালে রোগীর চাপ ক্রমশ বাড়তে থাকায় এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

এদিকে, দেশে রবিবার (০৩ মে) থেকে সোমবার (০৪ মে) পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ৬৮৮ জন রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। পাশাপাশি গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। 

এ নিয়ে বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত মোট শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১০ হাজার ১৪৩ জনে ও মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ১৮২ জনে।

সোমবার (০৪ মে) দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত অনলাইন স্বাস্থ্য বুলেটিনে এসব তথ্য জানান স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা। 

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ছয় হাজার ৩১৫টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। বিপরীতে, ছয় হাজার ২৬০টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এ নিয়ে দেশে মোট ৮৭ হাজার ৬৯৪টি নমুনা পরীক্ষা করা হলো। নতুন নমুনা পরীক্ষায় আরও ৬৮৮ জনের দেহে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত হয়েছে। এটি ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ শনাক্তের রেকর্ড।

About

Popular Links