Monday, May 27, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

এক মিলাদে দেড়শ বাড়ি লকডাউন!

সবগুলো বাড়িতে মিলাদের খাবার (তবারক) বিতরণ করেছিলেন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এক ব্যক্তি

আপডেট : ১৯ মে ২০২০, ১০:৫৮ এএম

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে একটি গ্রামের ১৫০টি পরিবারকে লকডাউন করেছে উপজেলা প্রশাসন। তাদের সবার বাড়িতে মিলাদের খাবার (তবারক) বিতরণ করেছিলেন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এক ব্যক্তি।

বিষয়টি জানার পর সোমবার (১৮ মে) কাশিয়ানী উপজেলার ওড়াকান্দি ইউনিয়নের খাগবাড়িয়া গ্রামের পরিবারগুলোকে লকডাউন করে দেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) সাব্বির আহমেদ।

স্থানীয় রামদিয়া পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক (এসআই) খোন্দকার আমিরুল ইসলাম জানান, “উপসর্গ থাকায় শনিবার (১৬ মে) করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরীক্ষার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নমুনা দিয়ে আসেন খাগড়াবাড়িয়া গ্রামের এক ব্যক্তি। পরদিন প্রশাসনকে না জানিয়েই কয়েকদিন আগে মারা যাওয়া ভাইয়ের নামে মিলাদের আয়োজন করেন। মিলাদ উপলক্ষে প্রায় সাড়ে পাঁচ শ’ প্যাকেট তবারক ১৫০টি পরিবারের বাড়িতে গিয়ে নিজ হাতে বিতরণ করেন তিনি।”

ওই দিন রাতেই উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার-পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. কাইয়ূম তালুকদার জানান, ওই ব্যক্তি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত।

সব শুনে সোমবার সকালে ইউএনও সাব্বির আহমেদ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তির বাড়িতে যান। যেসব বাড়িতে তিনি মিলাদের খাবার দিয়েছেন তাদের সবাইকে লকডাউনে থাকার নির্দেশ তিনি।

ইউএনও বলেন, “৫ দিন ওই ব্যক্তির ভাই ঢাকায় মারা যান। তাকে গ্রামের বাড়িতে এনে দাফন করা হয়। শনিবার তিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনাভাইরাস টেস্টের জন্য নমুনা দিয়ে আসেন। পরদিন তিনি প্রশাসনকে না জানিয়ে মৃত ভাইয়ের মিলাদ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন। ১৫০টি পরিবারের মাঝে সাড়ে পাঁচ শ’ খাবারের প্যাকেট খাবার বিতরণ করেছেন তিনি। এলাকাবাসীর নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে আমরা তাদের সবাইকে লকডাউনের আওতায় এনেছি। পাশাপাশি এলাকার দুইটি মসজিদের মাইকে ইমামদের মাধ্যমে লকডাউনের বিষয়টি ঘোষণা করেছি।”

পাশাপাশি, এলাকার সব মুসল্লিকে বাড়িতে নামাজ আদায়ের জন্য বলেন তিনি।

About

Popular Links