Tuesday, May 28, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

সর্বনিম্ন দামে ইন্টারনেট দিয়ে প্রতিযোগিতায় ফিরছে টেলিটক?

মন্ত্রী আরও বলেন, ‘টেলিটক তাহলে আছে কী জন্য? টেলিটক সবচেয়ে কমদামে ইন্টারনেট দেবে, যা অন্য কোনও মোবাইল ফোন অপারেটর গ্রাহককে দিতে পারবে না'।

আপডেট : ৩০ আগস্ট ২০১৮, ০৪:৪৫ পিএম

সবার চেয়ে কমদামে গ্রাহকদের ইন্টারনেট সেবা দিয়ে বাজারের প্রতিযোগিতায় ফিরতে চায় সরকারি মালিকানার মোবাইল ফোন অপারেটর টেলিটক। বিনিয়োগ এবং নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণ বিষয়ক জটিলতা দূর হওয়ায় অপারেটরটি এই উদ্যোগ নিয়েছে বলে জানা গেছে। শিগগিরই ফোরজি চালু করে বাজারের বর্তমান প্রতিযোগীদের চেয়েও কমদামে দ্রুতগতির মোবাইল ইন্টারনেট সেবা নিয়ে বাজারে ফিরছে টেলিটক।

নতুন মোবাইল ফোন অপারেটর দেশে আসছে, যারা ভারতের ‘জিও’ অপারেটরের মতো ডাটা (ইন্টারনেট) দিয়ে অন্যান্য অপারেটরের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করবে –এমন গুঞ্জন দেশে বেশ কিছুদিন ধরে চলছে। ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এ গুঞ্জনকে উড়িয়ে দিয়ে বলেন, ‘কোনও সুযোগ নেই। তবে নতুন অপারেটর না এলেও সরকার টেলিটককে দিয়ে সামনে মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীদের জন্য স্বস্তি নিয়ে আসছে'।

মন্ত্রী আরও বলেন, ‘টেলিটক তাহলে আছে কী জন্য? টেলিটক সবচেয়ে কমদামে ইন্টারনেট দেবে, যা অন্য কোনও মোবাইল ফোন অপারেটর গ্রাহককে দিতে পারবে না'।

মোস্তাফা জব্বার জানান, টেলিটকের সম্প্রসারণে দু’টো বাধা ছিল। বিনিয়োগ আর নেটওয়ার্ক। বড় ধরনের বিনিয়োগ এলে নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণের পাশাপাশি অপারেটরটির আধুনিকায়নের প্রতি মনোযোগী হওয়া সম্ভব ছিল। কিন্তু তা না হওয়ায় এরই মধ্যে অপারেটরটি অনেক পিছিয়ে গেছে।

মন্ত্রী বলেন, ‘একটি সাশ্রয়ী সেবা নিয়ে এলে গ্রাহক আবার আসবে। আগামী দিনগুলো ইন্টারনেটনির্ভর হয়ে উঠবে, মোবাইল গ্রাহকরা সরাসরি ভয়েস কল বাদ দিয়ে ইন্টারনেটনির্ভর কলের দিকে বেশি মনোযোগী হবে। আমাদের সেই সুযোগটাই নিতে হবে। ডাটা দিয়েই টেলিটককে তুলে আনা সম্ভব হবে। যে গ্রাহক চলে গেছে, তারা আবারও ফিরবে'।

সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্র জানায়, একসঙ্গে টেলিটকের গ্রাহকসংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় অপারেটরটির নেটওয়ার্কে বিশাল চাপে পড়ে। গ্রাহক সেবার মানও খারাপ হতে থাকে। গত ৬ মাসের টেলিটক গ্রাহক হারিয়েছে সাড়ে ৭ লাখের বেশি।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এ বছরের ২০ ফ্রেব্রুয়ারি গ্রামীণফোন, রবি, বাংলালিংক ও এয়ারটেল ফোরজি চালু করলেও টেলিটক তা চালু করতে পারেনি। ফলে টেলিটক গ্রাহক হারিয়েছে। অন্যদিকে অপরাজিতা সিম বিক্রির কারণে হঠাৎ নেটওয়ার্কে বিশাল চাপ পড়ায় অপারেটরটি সেটাও সামাল দিতে পারেনি। ফলে গ্রাহক অন্য অপারেটরমুখী হয়েছে।


সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন

About

Popular Links