Wednesday, May 29, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

মসজিদের অনুদানের টাকা আত্মসাৎ, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের নেতার কারাদণ্ড

করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে মসজিদে মসজিদে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া অনুদানের টাকা কৌশলে আত্মসাৎ করেন এই খতিব

আপডেট : ২৬ মে ২০২০, ০৬:৪৮ পিএম

ঠাকুরগাঁওয়ে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া মসজিদের অনুদানের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের এক ইউনিয়ন নেতাকে কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। 

নিজ নিয়ন্ত্রণাধীন মসজিদগুলোতে অনুদানের টাকা কম দেওয়া এবং অস্তিত্বহীন মসজিদ দেখিয়ে টাকা আত্মসাতের অভিযোগে সদর উপজেলার শুখানপুকুরী ইউনিয়নের মো. জয়নাল আবেদিন ওরফে মন্ডল (৪০) নামে ওই ব্যক্তিকে ৬ মাসের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়। 

দণ্ডপ্রাপ্ত  মো. জয়নাল আবেদিন ওই ইউনিয়নের ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ইউনিয়ন নেতা এবং ব্যাংরোল বুঝারিপাড়া মসজিদের খতিব। 

মঙ্গলবার (২৬ মে) দুপুরে এ সাজা প্রদান করেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আব্দুল্লাহ-আল-মামুন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার ফেসবুক পেইজ থেকে জানা যায়, করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে প্রধানমন্ত্রী দেশের প্রত্যকটি মসজিদে ৫০০০ টাকা করে অনুদান প্রদানের সিদ্ধান্ত নেন। সে অনুযায়ী ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলায় পৌরসভাসহ ১১৪০টি মসজিদে ঈদের আগেই ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের টাকা প্রদান করেন সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার। ইসলামিক ফাউন্ডেশন সমুদয় টাকা উত্তোলন করে তাদের প্রতিনিধিদের মাধ্যমে ইউনিয়নের মসজিদগুলোতে বিতরণ করেন।

এদিকে, সদর উপজেলার শুখানপুকুরী ইউনিয়নের ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রতিনিধি জয়নাল আবেদিন তার নিয়ন্ত্রণাধীন মসজিদগুলোতে প্রধানমন্ত্রীর বরাদ্দ পাঁচ হাজার টাকা করে না দিয়ে কোনো মসজিদে ২০০০, কোনো মসজিদে ৩০০০ আবার কোথাও ২৫০০ টাকা করে বিতরণ করেন। শুধু তাই নয়, ওই ইউনিয়নে অস্তিত্বহীন ৬টি মসজিদ দেখিয়ে স্থানীয় রাসেদ, সাহার আলী, শুকুর আলী, ইলিয়াস, আলম, ও বদিউল মুন্সিকে মসজিদের মুয়াজ্জিন বানিয়ে ৩০ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেন।

বিষয়টি জানাজানি হলে গত ২৫ মে রাতে ওই ইউনিয়নের ইউপি মেম্বার আমজাদসহ স্থানীয়রা জয়নাল আবেদিনকে ইউনিয়ন পরিষদে আটক করে রাখেন। পরে মঙ্গলবার (২৬ মে) সকালে তাকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করা হলে তিনি দোষ স্বীকার করেন। এ ঘটনায় ভ্রাম্যমাণ আদালত তাকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন।

এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক ড. কে এম কামরুজ্জামান সেলিম বলেন, “করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে মসজিদে মসজিদে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া অনুদানের টাকা আত্মসাৎকারী কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। আমরা প্রত্যেকটি মসজিদে খোঁজ-খবর নেওয়া শুরু করেছি। অনিয়ম পেলেই কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।”

About

Popular Links