Sunday, May 26, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

কারখানা রাবারের, বানানো হতো ম্যাংগো ড্রিংকস!

ভ্রাম্যমাণ আদালতের কাছে তারা বিএসটিআইয়ের ভুয়া কাগজপত্র দেখায় প্রতিষ্ঠানটি

আপডেট : ০৯ জুন ২০২০, ০৬:৫৪ পিএম

বগুড়ার বিসিক শিল্পনগরীর একটি রাবার কারখানায় পণ্যের মান নিয়ন্ত্রণকারী প্রতিষ্ঠান বিএসটিআইয়ের ভুয়া লোগো ব্যবহার করে তৈরি হচ্ছিল মানহীন ও অস্বাস্থ্যকর ম্যাংগো ড্রিংকস। খবর পেয়ে সেখানে অভিযান চালান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এটিএম কামরুল ইসলাম। 

ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে মঙ্গলবার (৯ জুন) দুপুরে অভিযান চালিয়ে আদায় করা হয় জরিমানা।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্র জানায়, রাবার ও প্লাস্টিক সামগ্রী তৈরির জন্য শহরের ফুলবাড়ি এলাকায় বিসিক শিল্প নগরীতে জায়গা ইজারা নিয়ে খাদ্যপণ্য উৎপাদন করে আসছিলেন নজমুল হোসেন নামে এক ব্যক্তি। প্রতিষ্ঠানটির নাম দেওয়া হয় “ড্রাগন ফুড অ্যান্ড বেভারেজ বাংলাদেশ লিমিটেড”। নজমুলের মৃত্যুর পর তার দুই ছেলে বকুল ও নীরব প্রতিষ্ঠানটি পরিচালনা করতেন। তারা জায়গাটি সেলিম রেজা নামে একজনকে ভাড়া দেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এটিএম কামরুল ইসলাম জানান, অনুমোদন না থাকলেও বিএসটিআইয়ের স্টিকার ব্যবহার করে ‍“প্রিয় ফ্রুটিক্স” নামে ম্যাংগো ড্রিংকস উৎপাদন ও বাজারজাত করে আসছিলেন সেলিম রেজা। খাদ্যপণ্য উৎপাদনের জন্য তার কোনো বৈধ অনুমোদন নেই। মঙ্গলবার দুপুরে গোপনে খবর পেয়ে ওই কারখানায় অভিযান চালানো হয়। 

“অভিযানে ভ্রাম্যমাণ আদালতের কাছে তারা বিএসটিআইয়ের ভুয়া কাগজপত্র দেখায়। এ অপরাধে সংশ্লিষ্ট আইনের প্রতিষ্ঠানটির মালিককে ৭০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। তারা জরিমানার অর্থ পরিশোধ করেছে।”

অভিযানে কারখানায় উৎপাদিত মানহীন পণ্য জব্দ করে ধ্বংস করা হয়। এদিন আরও একটি প্রতিষ্ঠানকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

অভিযানে বিএসটিআই বগুড়ার পরিদর্শক প্রকৌশলী জুনায়েদ আহম্মেদ, বিসিক শিল্প নগরী কর্মকর্তা একেএম মাহফুজুর রহমান, বগুড়া পৌরসভার স্বাস্থ্য পরিদর্শক শাহ্ আলী ও আইন-শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

About

Popular Links