Sunday, May 26, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত নার্সের মৃত্যু

‘প্রথমে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের করোনা আইসোলেশন ইউনিটে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছিলো। অবস্থার অবনতি হলে তাকে সাজেদা ফাউন্ডেশন হাসপাতালে পাঠানো হয়। কিন্তু কোথাও আইসোলেশন ইউনিটে সিট পাওয়া যাচ্ছিলো না’


আপডেট : ১২ জুন ২০২০, ০৭:০৫ পিএম

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সাভারের এনাম মেডিকেলে কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মীরা রানী দাস (৫৪) নামে এক সেবিকার (নার্স) মৃত্যু হয়েছে।

বৃহম্পতিবার (১১ জুন) সাড়ে ১১টার দিকে তার মৃত্যু হয়। মীরা রানী দাস নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সিনিয়র ষ্টাফ নার্স (ইনচার্জ) হিসেবে দায়িত্বরত ছিলেন। তিনি নারায়ণগঞ্জের রুপগঞ্জ উপজেলার মুড়াপাড়া এলাকার সুমল কুমারের স্ত্রী ও টাঙ্গাইল জেলার ঘাটাইল থানাধীন পাড়াগ্রাম এলাকার সুপ্ত কুমার দাসের মেয়ে।

আড়াইহাজার উপজেলা কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতির শুরু থেকেই আড়াইহাজার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দায়িত্ব পালন করছিলেন মীরা রানী দাস। গত ২৯ মে তার শরীরে করোনাভাইরাসের উপসর্গ দেখা দেয়। ৩১ মে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নমুনা দেন। ২ জুন গাজী (কোভিড) সেন্টার থেকে প্রাপ্ত রিপোর্টে তার করোনাভাইরাস শনাক্তের বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়। পরে শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে প্রথমে সাজেদা ফাউন্ডেশন হাসপাতালে পরবর্তীতে সাভারের এনাম মেডিকেলে ভর্তি করা হয়। ১১ জুন  হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায়ই তার মৃত্যু হয়।

মৃতের নিকট আত্মীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপ-সহকারি কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার রূপালী রানী দাস ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “উপজেলা কমপ্লেক্সে আগত বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা দিয়ে আসছিলেন মীরা রানী দাস। একসময় তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। বৃহস্পতিবার সকালে এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।”

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার-পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সায়মা আফরোজ ইভা ঢাকা ট্রিবিউনকে জানান, প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের করোনা আইসোলেশন ইউনিটে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছিলো। অবস্থার অবনতি হলে তাকে সাজেদা ফাউন্ডেশন হাসপাতালে পাঠানো হয়। কিন্তু কোথাও আইসোলেশন ইউনিটে সিট পাওয়া যাচ্ছিলো না। সাভারে এনাম মেডিকেলে একটি সিট পাওয়া গেলে তাকে সেখানে পাঠানো হয়। পরে বৃহস্পতিবার সকালে তিনি মারা যান।

তিনি আরও জানান, আড়াইহাজার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের করোনা ফোকাল পার্সন, ল্যাব টেকনেশিয়ান, আরএমও, চিকিৎসক, নার্সসহ ২৩ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে মীরা রানী দাসের মৃত্যু হয়েছে এবং সুস্থ হয়ে কাজে ফিরেছেন ৭ জন।

About

Popular Links