Thursday, May 30, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবি, ৩২ জনের মরদেহ উদ্ধার

এখনও অনেক মানুষ নিখোঁজ রয়েছেন

আপডেট : ২৯ জুন ২০২০, ১১:০৮ এএম

রাজধানীর ফরাশগঞ্জ ঘাট এলাকায় বুড়িগঙ্গা নদীতে লঞ্চডুবির ঘটনা ঘটেছে। সোমবার (২৯ জুন) সকাল ৯টা ৩৩ মিনিটে ফরাশগঞ্জ ঘাট সংলগ্ন বুড়িগঙ্গা নদীতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৩২ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তবে, এখনও অনেকে নিখোঁজ রয়েছেন।

ফায়ার সার্ভিস সদর দপ্তরের ডিউটি অফিসার রোজিনা আখতার এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন জানান, এম এল মর্নিং বার্ড নামের একটি লঞ্চকে আরেকটি লঞ্চ ধাক্কা দিলে সেটি ডুবে যায়। কোস্টগার্ড, বিআইডাব্লিউটিএ, ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল ও নৌবাহিনীর ডুবুরি দল যৌথভাবে উদ্ধার অভিযান চালাচ্ছে। এখন পর্যন্ত ৩২ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তবে, নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন উদ্ধারকর্মীরা।

সদরঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম ভূঁইয়া বলেন, “মুন্সীগঞ্জের কাঠপট্টি এলাকা থেকে ৬০-৭০ জন যাত্রী নিয়ে মর্নিং বার্ড নামের ওই লঞ্চটি ঢাকায় ফিরছিল। এ সময় ময়ূর-২ নামের একটি লঞ্চ মর্নিং বার্ডকে ধাক্কা দিলে সেটি ডুবে যায়।"

এদিকে নিহতদের মৃতদেহ রাজধানীর মিটফোর্ড হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। উদ্ধার অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে কোস্টগার্ড। ময়ূর-২ লঞ্চটি জব্দ করা হয়েছে। তবে, লঞ্চের মাস্টার পালিয়েছেন।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌযান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বিআইডাব্লিউটিএ)  এ কে এম আরিফ উদ্দিন ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “নদীর তলদেশে এম এল মর্নিং বার্ড নামের লঞ্চটিকে শনাক্ত করা হয়েছে। লঞ্চটি উদ্ধার করতে নারায়ণগঞ্জ থেকে প্রত্যয় নামের একটি জাহাজ রওনা দিয়েছে।”

তিনি আরও জানান, এই ঘটনায় বিআইডাব্লিউটিএ-এর যুগ্ম পরিচালক জয়নাল আবেদীনকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

দুর্ঘটনার কবলে পড়া লঞ্চ থেকে বেঁচে ফেরা যাত্রীরা জানান, ৭০-৮০ জন মানুষ ছিলেন লঞ্চটিতে। যখন লঞ্চটি ডোবে তখন প্রায় ৫০ জন লঞ্চের ভেতরে ছিলেন।

এদিকে এখনও পর্যন্ত ২৪টি লাশ মিটফোর্ড হাসপাতালের মর্গে আনা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান। তিনি জানান, এখান শনাক্তকরণ প্রক্রিয়া শেষে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

 

About

Popular Links