Monday, May 27, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বাথরুমে অজ্ঞান অবস্থায় পড়ে ছিল ধর্ষণের শিকার মেয়েটি

এ ঘটনায় অভিযুক্ত রুবেলকে গ্রেফতার করতে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ

আপডেট : ০৭ জুলাই ২০২০, ১০:২২ এএম

পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় দশম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। শনিবার (৪ জুলাই) এই ঘটনা ঘটে বলে নিশ্চিত করেছেন। সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু সাঈদ চৌধুরী।

এ ঘটনায় রুবেল হোসেন (২২) নামে এক যুবককে আসামি করে তেঁতুলিয়া মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। বর্তমানে মেয়েটি পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, তেঁতুলিয়ার দেবনগর ইউনিয়নের হেংগাডোবা গ্রামের রফিজুল ইসলামের ছেলে রুবেল ওই ওই কিশোরীকে দীর্ঘদিন ধরে উত্যক্ত করে আসছিল। বিষয়টি মেয়েটি তার বাবা-মাকে জানালে তারা রুবেলের পরিবারের কাছে অভিযোগ করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে রুবেল আরও বেপরোয়া হয়ে যায়।

এক পর্যায়ে শনিবার রাতে ওই কিশোরী ঘর থেকে বের হলে বাইরে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা রুবেল তার মুখ চেপে ধরে বাড়ির পাশের বাঁশ বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে। এ সময় মেয়েটি অজ্ঞান হয়ে পড়লে তাকে বাড়ির বাথরুমে ফেলে রেখে পালিয়ে যায় সে। মাঝরাতে ওই এলাকায় রুবেলকে দেখতে পেয়ে স্থানীয়দের সন্দেহ হয়। এ সময় তাকে আটক করার চেষ্টা করা হলেও পালিয়ে যেতে সক্ষম হয় সে।

এদিকে ওই কিশোরীকে ঘরে না পেয়ে খোঁজাখুঁজি শুরু করেন পরিবারের লোকজন। খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে বাড়ির পাশের বাঁশঝাড়ে মেয়েটির জুতা পরনের কাপড় পান তারা।

পরদিন সকালে পরিবারের লোকজন বাথরুমে ওই কিশোরীকে খুঁজে পেয়ে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ঘটনায় ওই কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে রুবেলকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা তেঁতুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আমজাদ আলী মন্ডল জানান, “ডাক্তারি পরীক্ষা শেষে মেয়েটিকে আমলি আদালতের বিচারকের কাছে জবানবন্দির জন্য হাজির করা হবে। আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।”

সদর থানার ওসি আবু সাঈদ চৌধুরী জানান, আসামিকে গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

About

Popular Links