Wednesday, May 22, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে দেড় বছর ধরে আইনজীবীকে ধর্ষণ, চিকিৎসক আটক

ওসি শাহাদাত হোসেন খান বলেন, কিছু ভিডিও উদ্ধার করা হয়েছে

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২০, ০৮:১১ পিএম

রাজশাহী নগরীতে এক নারী আইনজীবীকে (২৭) দেড় বছর ধরে ধর্ষণের অভিযোগে এক চিকিৎসককে আটক করেছে পুলিশ। শনিবার (২৫ জুলাই) দুপুরে পুলিশ অভিযুক্ত চিকিৎসককে আটক করে বলে জানিয়েছেন রাজশাহী মহানগর পুলিশের (আরএমপি) মুখপাত্র গোলাম রুহুল কুদ্দুস।

আটক ওই চিকিৎসকের নাম সাখাওয়াত হোসেন রানা (৪০)। তিনি রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের চক্ষু বিশেষজ্ঞ। তার গ্রামের বাড়ি নওগাঁর পোরশা উপজেলায়। 

পুলিশ কর্মকর্তা গোলাম রুহুল কুদ্দুস জানান, ওই নারীর অভিযোগ করেন, প্রায় দেড় বছর আগে ডা. রানার সঙ্গে তার পরিচয় হয়। কিছু দিনের মধ্যেই রানা তার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন। এরপর একদিন কৌশলে তাকে ধর্ষণ করেন এবং ভিডিওচিত্র ধারণ করে রাখেন। তারপর সেই ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে দেড় বছর ধরে তাকে ধর্ষণ করা হয়। 

ওই নারীর বরাত দিয়ে গোলাম রুহুল কুদ্দুস আরও জানান, শনিবার দুপুরে রানা ওই নারীর ভাড়া বাসায় গিয়ে তার সঙ্গে জোরপূর্বক শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করতে চান। এ সময় ওই নারীর বান্ধবী পুলিশের জরুরি সেবার ৯৯৯ নম্বরে কল দেন। এছাড়া তিনি আশপাশের লোকজনকে বিষয়টি জানান। তখন এলাকাবাসী ওই চিকিৎসককে আটকে রাখেন। পরে পুলিশ গিয়ে তাকে রাজপাড়া থানায় নিয়ে যায়। সেই সঙ্গে ভুক্তভোগী ওই নারীকেও থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।

রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহাদাত হোসেন খান বলেন, কিছু ভিডিওচিত্র উদ্ধার করা হয়েছে। তবে ওই চিকিৎসক দাবি করছেন, জোর করে নয়। প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে। মামলা দায়েরের পর অভিযুক্ত চিকিৎসককে রবিবার (২৬ জুলাই) সকালে আদালতে সোপর্দ করা হবে। সেইসঙ্গে ওই নারীর মেডিকেল পরীক্ষা হবে।

About

Popular Links