Friday, May 31, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

স্বাস্থ্যমন্ত্রী: যেখানে অন্যায়, সেখানেই দ্রুত ব্যবস্থা

‘দেশের স্বাস্থ্যখাত এখন আর ভঙ্গুর অবস্থায় নেই। তবে সারাক্ষণ এই খাতকে নিয়ে বেশি সমালোচনা করলে মানুষ দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় আস্থা হারাবে’

আপডেট : ২৭ জুলাই ২০২০, ০৬:০২ পিএম

হাসপাতাল, ক্লিনিকসহ স্বাস্থ্যখাতের অনিয়ম তদন্তে একটি টাস্কফোর্স গঠন করা হয়েছে জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, ‘যেখানেই অন্যায় হবে, সেখানেই দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, “মন্ত্রণালয়ের কাজের গতি এখন অনেকগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। হাসপাতাল, ক্লিনিকসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যখাতে কোনো অনিয়ম হয় কিনা তার জন্য একটি টাস্কফোর্স গঠন করে দেওয়া হয়েছে। হাসপাতাল সেবা মনিটরিংয়ের জন্য নতুন কমিটি করা হয়েছে। কাজেই এখন যেখানেই অন্যায় হবে সেখানেই দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

সোমবার (২৭ জুলাই) সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সংশ্লিষ্ট ৮টি বিভাগের সাথে বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

দেশের স্বাস্থ্যখাতের অধিক সমালোচনার কারণে ভিন্ন কোনো মহল সুবিধা নিতে পারে বলেও মন্তব্য করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

তিনি বলেন, “দেশের স্বাস্থ্যখাত এখন আর সেই ভঙ্গুর অবস্থায় নেই। তবে সারাক্ষণ এই খাতকে নিয়ে বেশি সমালোচনা করলে মানুষ দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় আস্থা হারাবে এবং সামান্য কিছু হলেই চিকিৎসার জন্য বিদেশমুখী হবে। এতে অন্যান্য দেশের স্বাস্থ্যখাত লাভবান হবে। আর আমাদের স্বাস্থ্যখাত বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে। অথচ আমাদের দেশে সব ধরনের সুযোগ সুবিধা এখন বিদ্যমান রয়েছে।”

পার্শ্ববর্তী ভারতের থেকেও করোনাভাইরাস মোকাবেলায় এগিয়ে রয়েছেন দাবি করে মন্ত্রী বলেন, “আমরা অনেক এগিয়ে রয়েছি। এই ভাইরাস কেবল আমাদেরকে ক্ষতিগ্রস্ত করেনি, এটি বিশ্বের সব দেশেরই ক্ষতি করেছে।”

সমালোচনার পাশাপাশি স্বাস্থ্যখাতের অর্জনগুলো তুলে ধরার দাবি জানিয়ে জাহিদ মালেক বলেন, “তাহলে দেশের মানুষ চিকিৎসা নিতে বিদেশে গিয়ে অযথা তাদের অর্থ-সম্পদ বেশি নষ্ট করবে না। আর কোথাও কোনো অনিয়ম হলে আমরা অতি দ্রুত সেটির ব্যবস্থা নিতে কোনো রকম পিছুপা হবো না।”

তিনি আরও জানান, বর্তমানে দেশের প্রতিটি বিভাগে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় ও প্রতিটি জেলায় মেডিকেল কলেজ নির্মাণের কাজ হাতে নেওয়া হয়েছে।

পাশাপাশি, ৮ বিভাগে ৮টি ক্যান্সার হাসপাতাল করা হচ্ছে। ১০ হাজার চিকিৎসক, ১৫ হাজার নার্সসহ পর্যাপ্ত জনবল প্রস্তুত করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

 

About

Popular Links