Friday, June 21, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

করোনাভাইরাসের তীব্রতার মধ্যেও ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জানাজায় হাজার হাজার লোক

জানাজায় অংশ নিয়ে লোকজন কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কে দাঁড়িয়ে পড়লে দুই ঘণ্টারও বেশি সময়ের জন্য যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকে

আপডেট : ০৯ আগস্ট ২০২০, ০৯:৫১ পিএম

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলায় করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যেই “বড় হুজুর” হিসেবে পরিচিত ভাদঘুর জামিয়া সিরাজিয়া দারুল উলুম মাদরাসার অধ্যক্ষ শায়খুল হাদিস আল্লামা মনিরুজ্জামান সিরাজীর জানাজায় হাজার হাজার লোকের সমাগম ঘটেছে।

রবিবার (৯ আগস্ট) বিকেলে মাদরাসা প্রাঙ্গণেই মনিরুজ্জামান সিরাজীর জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

জানা গেছে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে কম লোকসমাগমের জানাজা নিশ্চিত করতে প্রশাসনের বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করলেও বিপুল সংখ্যাক লোকের সমাগম হয়। এরপরও প্রশাসনের বিভিন্ন উদ্যোগের কারণে বেশি লোকের সমাগম হয়নি বলে দাবি করা হচ্ছে। 

জানাজায় অংশ নিতে জেলা সদরসহ আশেপাশের বিভিন্ন জেলা থেকে লোকজন আসে। জানাজায় অংশ নিয়ে লোকজন কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কে দাঁড়িয়ে পড়লে দুই ঘণ্টারও বেশি সময়ের জন্য যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকে। 

মনিরুজ্জামান সিরাজী (৯১) রবিবার দুপুরে পৌর এলাকার ভাদুঘরের নিজ বাসভবনে মৃত্যুবরণ করেন। বড় হুজুর হিসেবে পরিচিত মনিরুজ্জামান সিরাজী হেফাজতে ইসলাম ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখার সভাপতি ও ইসলামী আইন বাস্তবায়ন কমিটি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখার আমির ছিলেন। 

এর আগে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক (ডিসি) হায়াত-উদ-দৌলা খান, পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ আনিসুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল-মামুন সরকার জানাজার বিষয়টি নিয়ে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলেন। যে কারণে শেষ পর্যন্ত নিয়াজ মুহম্মদ স্টেডিয়াম ও জেলা ঈদগাহ মাঠ বাদ দিয়ে ভাদুঘরের মাদরাসায় সীমিত পরিসরে জানাজা অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত হয়। 

বিকেলে আসরের নামাজের পর জানাজার সময় নির্ধারণ করা হলেও দুপুর ৪টা থেকেই বিভিন্ন এলাকা থেকে লোকজন আসতে শুরু করে। পুলিশের পক্ষ থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এত লোক জড়ো না হওয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়। সন্ধ্যায় ৬টায় জানাজায় শুরু হওয়ার সময় কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের বিয়াল্লিশ’র থেকে কাউতলী পর্যন্ত লোকজন জানাজার জন্য দাঁড়িয়ে পড়েন। যে কারণে সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া ডিসি হায়াত-উদ-দৌলা খান জানান, “আমরা চেষ্টা করেছিলাম লোক সমাগম যেন কম হয়। তবে জানাযায় হাজার ৫ হাজার লোক হয়েছে বলে জানতে পেরেছি।” 

মহাসড়ক দুই ঘণ্টা বন্ধ থাকার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ঈদ মৌসুম যানবাহনের চাপ ছিল। তাই যানজট হয়েছে।

এ বিষয়ে পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান জানান, জানাজার ব্যপারে আগে থেকে বিভিন্ন স্থানে পুলিশ চেকপোস্ট বসানো হয়। তাই লোক সমাগম তেমন ঘটেনি।

About

Popular Links