Friday, May 31, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

প্রাক্তন স্ত্রীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা

টানা নয় বছর সংসারের পর পারিবারিক কলহের কারণে কয়েক মাস আগে ওই নারী তার স্বামীকে তালাক দেন

আপডেট : ০৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪:৩১ পিএম

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে তালাক দেওয়ায় সালমা আক্তার (৩৫) নামে এক নারীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করেছে তার প্রাক্তন স্বামী লিটন মিয়া। নিহত সালমার গ্রামের বাড়ি গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার বেলতলীতে। পুলিশ অভিযুক্ত লিটন মিয়াকে রক্তাক্ত ছুরিসহ আটক করেছে। তার বাড়ি সাঘাটার পশ্চিম আগবপুর গ্রামে। 

বৃহস্পতিবার (৩ সেপ্টেম্বর) সকালে উপজেলার মাটিকাটা (রেললাইন) এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। কালিয়াকৈর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবু সাঈদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।  

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে এসআই আবু সাঈদ জানান, প্রায় ৯ বছর আগে লিটনের সঙ্গে সালমার বিয়ে হয়। বিয়ের মাত্র ১৫ দিন পরই পারিবারিক কলহের কারণে সালমা আক্তার স্বামী লিটনকে তালাক দেন। পরবর্তীতে লিটনের পরিবারের মধ্যস্থতায় আবারও তাদের বিয়ে হয়। এরপর থেকে ওই দম্পতি চাকরিসূত্রে মাটিকাটা এলাকায় বাসা ভাড়া নিয়ে থাকতেন। সালমা আক্তার ছিলেন অ্যাপেক্স লিনজেরি কারখানার শ্রমিক আর লিটন চাকরি করতেন মৌচাক জেনারেল ফার্মাসিউটিক্যাল কারখানায়।

টানা নয় বছর সংসারের পর পারিবারিক কলহের কারণে আবারও কয়েক মাস আগে সালমা আক্তার তার স্বামীকে তালাক দেন। এরপর থেকে তারা আলাদা থাকতেন। মাসখানেক আগে লিটনের চাকরি চলে যায়। 

বৃহস্পতিবার সকাল আনুমানিক ৯টার দিকে ধারালো ছুরি নিয়ে লিটন বাসায় ঢুকে সালমাকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যান। চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন তাকে উদ্ধার করে কালিয়াকৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক সালমাকে মৃত ঘোষণা করেন। তার বুকসহ শরীরের একাধিক স্থানে ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে। 

খবর পেয়ে কালিয়াকৈর থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে অ্যাপেক্স লিনজেরি কারখানার পাশ থেকে লিটন মিয়াকে আটক করে। 

নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন।


About

Popular Links