Sunday, May 19, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

গণপিটুনিতে যুবককে হত্যা, পুলিশ বলছে ‘গরুচোর’

নিহত মরদেহ উদ্ধার করে বগুড়া মর্গে পাঠানো হয়েছে

আপডেট : ১১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১:৫৩ এএম

বগুড়ার নন্দীগ্রামে উজ্জ্বল হোসেন (৩৫) নামে এক ব্যক্তিকে গণপিটুনিতে হত্যা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১০ সেপ্টেম্বর) দিবাগত গভীর রাতে উপজেলার ভাটরা ইউনিয়নের শেখের মারিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 

শুক্রবার সকালে পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে। 

বিষয়টি নিশ্চিত করে নন্দীগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শওকত কবির ঢাকা ট্রিবিউনকে জানান, গরু চুরি করতে গিয়ে গণপিটুনিতে ওই ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, নিহত উজ্জ্বল হোসেনের বাড়ি নন্দীগ্রাম উপজেলার রায়পাড়া গ্রামে। তার বিরুদ্ধে থানায় হত্যাচেষ্টা ও চুরির মামলা রয়েছে। উজ্জ্বলসহ চারজন বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে শেখের মারিয়া গ্রামে কৃষক বেলাল হোসেনের বাড়িতে যায়। তারা তালাকেটে গোয়াল ঘরে ঢুকে একটি গাভী চুরির চেষ্টা করে। বাড়ির মালিক বিষয়টি টের পেয়ে চিৎকার করলে প্রতিবেশিরা ছুটে আসেন। তারা ধাওয়া করে উজ্জ্বল হোসেনকে আটক করলেও অন্য তিনজন পালিয়ে যায়। এরপর বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসীরা তাকে পিটিয়ে হত্যা করে। 

স্থানীয় ভাটরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোরশেদুল বারী জানান, সাম্প্রতিক সময়ে শেখের মারিয়া গ্রামে গরু চুরি বেড়ে গেছে। গত দেড় মাসে বেশ কয়েকটি বাড়ি থেকে গরু ও বাজার থেকে দুটি রিকশা ভ্যান চুরি হয়। এসব চুরির সঙ্গে পেশাদার চোর উজ্জ্বল জড়িত ছিল। 

“বৃহস্পতিবার রাতে আবারও গরু চুরির চেষ্টা করলে গ্রামবাসী চার চোরের মধ্যে উজ্জ্বলকে আটক করতে সক্ষম হয়। পরে বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসীর পিটুনিতে উজ্জ্বল মারা যায়।”

ওসি শওকত কবির জানান, নিহত উজ্জ্বলের মরদেহ উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এ ঘটনায় তার পরিবার মামলা করলে তা গ্রহণ করা হবে। অন্যথায় পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করবে।

About

Popular Links