Thursday, May 23, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

অর্নিদিষ্টকালের জন্য শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী রুটে ফেরি বন্ধ

এই রুটে নাব্য সংকটসহ নানা সমস্যার কারণে দীর্ঘ দিন ধরে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে

আপডেট : ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:৪৭ পিএম

মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে অর্নিদিষ্টকালের জন্য সব ধরনের ফেরি চলাচল বন্ধ ঘোষনা করা হয়েছে। রবিবার(১৩ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৯টার দিকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন শিমুলিয়া ঘাটের বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) উপমহাব্যবস্থাপক মো. শফিকুল ইসলাম।

শফিকুল ইসলাম জানান, চ্যানেলে বিপর্যয়ের কারণে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে অনিদির্ষ্টকালের জন্য ফেরি চলাচল বন্ধ থাকবে।

এদিকে, এই রুটে নাব্য সংকটসহ নানা সমস্যার কারণে দীর্ঘ দিন ধরে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। এর আগে নদী ভাঙনে শিমুলিয়া ঘাটের ৩ ও ৪ নম্বর ফেরিঘাট বিলীন হয়ে যায়। বালুর বস্তা ফেলে কোনমতে ঘাট রক্ষার চেষ্টা করা হচ্ছে। ৩ নম্বর ফেরি ঘাট পুনরায় স্থাপন করা হলেও ৪ নম্বর ফেরি ঘাট এখনো স্থাপন করা হয়নি। 

অন্যদিকে, ৩ নম্বর ফেরি ঘাটের পাশে শুক্রবার (১১ সেপ্টেম্বর) রাতে আবার ভাঙনের তাণ্ডব শুরু হয়। সে কারণে শনিবার থেকে ৩ নম্বর ফেরি ঘাট বন্ধ রাখা হয়েছিল। 

এদিকে, ৩ সেপ্টেম্বর থেকে ফেরি চলাচল বন্ধ রাখার আট দিন পরে শুক্রবার (১১ সেপ্টেম্বর) এ রুটে পরীক্ষামূলকভাবে ফেরি চলাচল শুরুর পর আবার শনিবার (১২ সেপ্টেম্বর) সকালে একদফা ফেরি চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। কারণ, যান নিয়ে রওনা দিলেও চ্যানেলে নাব্য সংকটের কারণে ফেরত আসে ঘাট ছেড়ে যাওয়া দুইটি ফেরি। 

আবার, রবিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) সকালে চারটি ফেরি শিমুলিয়া ঘাট ছেড়ে যাওয়ার পর ফেরি চলাচল পুনরায় বন্ধ রাখা হয় এবং বিকালে আবার একটি ফেরি "ফেরি কুমিল্লা" ঘাট ছেড়ে যায়।

বিআইডব্লিউটিসি'র শিমুলিয়া ঘাটের সহকারী ব্যবস্থাপক (বানিজ্য) মোহাম্মদ ফয়সাল জানান, সকালে ফেরি চলার পর আবার ফেরি চালানো বন্ধ করা হয়। কারণ, এখন চ্যানেলে অনেক বেশি পলি জমছে। ড্রেজিং করে চ্যানেলের মুখ থেকে পলি অপসারণ করে বিকালে একটি ফেরি চলে। এখন আবার ফেরি চলাচল বন্ধ।

বিআইডাব্লিউটিএ'র চেয়ারম্যান গোলাম সাদেক গত ২ সেপ্টেম্বর পদ্মা নদীর ড্রেজিং এলাকা পরিদর্শন করে সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, এক সপ্তাহের মধ্যে ফেরি চলাচল শুরু হবে। কিন্তু, প্রায় দুই সপ্তাহ হয়ে গেলেও ফেরি চলাচল স্বাভাবিক না হয়ে বরং অনির্দিষ্টকাল বন্ধ ঘোষণা করা হলো।

গোলাম সাদেক বলেন, “এক সপ্তাহের মধ্যে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে ফেরি চলাচল স্বাভাবিক হতে পারে। বর্তমানে এই নৌরুটে কে-টাইপ ও মিডিয়াম টাইপের ছোট ফেরিগুলো সচল রাখার জন্য সাধ্যমতো চেষ্টা চলছে। যাত্রীদেরকে শিমুলিয়া ও কাঁঠালবাড়ি ঘাট ব্যবহার না করার জন্য অনুরোধ করা হচ্ছে। দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া রুটে চলাচলের জন্য বলা হচ্ছে।” “কয়েকদিন আমাদের একটু কষ্ট করতে হবে। তবে, শিগগির একটি সুন্দর ব্যবস্থা চালু করা হবে। চ্যানেলে ড্রেজিং কাজ চলছে। এক জায়গা থেকে ড্রেজার নিয়ে আরেক জায়গায় বসানোও বেশ কষ্টসাধ্য। ১২ জন মানুষের দুইদিন লেগে যায়।”

 

About

Popular Links