Tuesday, May 28, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষা ‘গুচ্ছ পদ্ধতিতে’ নেওয়া নিয়ে সংশয়

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘এখনও তিনমাস বাকি আছে। তিনমাস পরে কী পরিস্থিতি হয় তার ওপর নির্ভর করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে’

আপডেট : ০৭ অক্টোবর ২০২০, ১০:৫৩ পিএম

শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি বলেছেন, জেএসসি ও এসএসসি’র ফলাফলের ভিত্তিতে আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে এইচএসসি’র চূড়ান্ত মূল্যায়ন ফল ঘোষণা করা হবে, যাতে জানুয়ারি থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু হতে পারে।

বুধবার (৭ অক্টোবর) ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, “আমরা আশা করছি সমন্বিত পদ্ধতিতেই আমরা সব ধরনের বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা নিতে পারব।”

সেই পরীক্ষাগুলো গুচ্ছ পদ্ধতিতে কেমন করে হবে জানতে চাইলে, তখনকার কোভিড-১৯ পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে আলোচনা করে সেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে জানিয়ে দিপু মনি বলেন, “কারণ এখনও তিনমাস বাকি আছে। তিনমাস পরে সেই মূল্যায়নের জন্য কী পরিস্থিতি হয় তার ওপর নির্ভর করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।”

গত মার্চে দেশে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরুর পর এপর্যন্ত ৩ লাখ ৭৩ হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছে, মৃত্যু হয়েছে ৫ হাজার ৪৪০ জনের। সর্বশেষ বুধবার ৩৫ জনের মৃত্যু হয়েছে, শনাক্ত হয়েছে দেড় হাজারের বেশি রোগী।

এই অবস্থায় এইচএসসি পরীক্ষা না নেওয়ার সিদ্ধান্ত হওয়ায় এই পরীক্ষার মূল্যায়ন তৈরিতে পরামর্শ দেওয়ার জন্য একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি করে দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

এই কমিটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা নিয়েও মতামত দেবে জানিয়ে দীপু মনি বলেন, নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহের মধ্যে কমিটির পূর্ণাঙ্গ পরামর্শ তারা পাবেন বলে আশা করছেন।

তিনি বলেন, “বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের পরীক্ষায় গিয়ে মেধা পুরোপুরি যাচাই হবে সেকথা যদি এখন আমি বলি, আমি কি এখন নিশ্চয়তা দিতে পারি যে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষাও সশরীরে দেওয়ার মত পরিস্থিতি হবে?”

দিপু মনি বলেন, “আমরা আশা করছি পরিস্থিতির আরও উন্নতি হবে এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষাগুলো নেওয়া সম্ভব হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষাগুলো কী পদ্ধতিতে নেওয়া হবে সেটি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে সিদ্ধান্ত হবে।”

About

Popular Links