Saturday, May 25, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ছোট বোনকে ‘ধর্ষণে’ ব্যর্থ হয়ে বড় বোনকে ছুরিকাঘাত!

এ ঘটনায় ফতুল্লা মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরি দায়ের করায় সোমবার রাতে ভুক্তভোগীর আরো কয়েক দফা হামলা চালায় অভিযুক্তরা

আপডেট : ১৩ অক্টোবর ২০২০, ০৪:১০ পিএম

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় ছোট বোনকে ধর্ষণে বাধা দেয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে বড় বোনকে ছুরিকাঘাত করার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যদের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ফতুল্লা মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরি দায়ের করায় সোমবার (১২ অক্টোবর) রাতে ভুক্তভোগীর বাড়িতে আরো কয়েক দফা হামলা চালায় অভিযুক্তরা।

এর আগে রবিবার রাতে ফতুল্লার শিহাচর শাহজাহান রোলিং মিল এলাকায় ছুরিকাঘাতের ঘটনা ঘটে। একদিন চিকিৎসা শেষে আহত তরুণী ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়ে সোমবার বাড়ি ফিরেছেন।

ঘটনার বর্ণণা দিয়ে তিনি জানান, “রবিবার রাত সাড়ে ৯টার সময় প্রধান অভিযুক্ত জীবন ও লাদেনসহ প্রায় ১০-১৫ জন ছেলে আমাদের বাসায় আসে। ওরা এসেই আমাদের ঘরে প্রবেশ করে। এ সময় জীবন আমার বোনকে জড়িয়ে ধরে। তখন আমি জীবনকে ধাক্কা দিয়ে সরিয়ে আমার বোনকে বাঁচাই। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে হামলাকারীরা আমাকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয় এবং আমার ছোট বোনকে টেনে হিঁচড়ে ঘর থেকে বের করে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। তখন আবারো আমি তাদের সামনে গিয়ে দাঁড়ালে জীবন আমার পেটে কয়েকটি ছুরিকাঘাত করে দলবল নিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায়।”
 পরে পরিবারের লোকজন ও স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে নারায়ণগঞ্জের ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখান থেকে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

ভুক্তভোগী পরিবারের অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরে আহত তরুণীর ছোটবোনকে একই এলাকার জীবন ও লাদেন কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। তারা নানাভাবে ওই তরুণীর ছোট বোনকে উত্যক্ত করতো। একাধিকবার তাদের পরিবারের কাছে অভিযোগ দিয়েও কোনো সমাধান পাওয়া যায় নি।

তারা আরও জানান, এক পর্যায়ে নাম গোপন করে ওই দুই অভিযুক্তের বিরুদ্ধে জিডি করেন তারা। এই খবর জানতে পেরে সোমবার রাতে কয়েক দফা তাদের বাড়িতে হামলা চালিয়ে টিনের ঘর ও দরজা ভেঙে ফেলে এবং জিডি প্রত্যাহারের জন্য ভয়ভীতি দেখায়।

তবে ফতুল্লা পুলিশের ধারণা, ধর্ষণ নয় পূর্বশত্রুতার জের ধরে এ ঘটনা ঘটেছে। এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসেন জানান, “হামলা ও ছুরিকাঘাতের ঘটনা সত্য। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। তবে এখানে কোনো ধর্ষণের কোনো ঘটনা নেই।”

তিনি আরো জানান, “ওই তরুণী পরিবারের সাথে হামলাকারীদের আগের থেকেই শত্রুতা রয়েছে। হামলাকারীরা তাদের ঘরে মাদক সেবন করতো। সম্প্রতি এ নিয়ে হামলাকারীদের সাথে ওই পরিবারের মধ্যে বিবাদ হয়। এর জের ধরেই হামলার ঘটনা ঘটে।”

About

Popular Links