Tuesday, May 28, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ধারের ৫’শ টাকা ফেরত চাওয়ায় বন্ধুকে হত্যা

এ ঘটনায় ৫ জনকে গ্রেফতার করেছে পিবিআই

আপডেট : ০৭ নভেম্বর ২০২০, ০২:১৫ পিএম

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলায় বন্ধুকে ধার দেওয়া ৫’শ টাকা ফেরত চাওয়ায় উপজেলায় পানিতে ডুবিয়ে মো. তাসিন (২২) নামে এক যুবককে হত্যার অভিযোগে ৫ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশের ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

শুক্রবার (৬ নভেম্বর) পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) এর নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।  

এর আগে গত ৪ নভেম্বর ভোর রাতে রাজধানীর খিলগাঁও এলাকা থেকে তাসিন হত্যা মামলার সন্দেহজনক আসামি মো.নজরুল ইসলামকে (২২) গ্রেফতার করে পিবিআইয়ের একটি টিম। পরে নজরুলের দেওয়া তথ্যমতে হত্যাকাণ্ডে জড়িত আরও ৪ আসামিকে ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থান থেকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হল- ভোলা জেলার ভেদুরিয়া থানার বাসিন্দা নজরুল (২২), তার বন্ধু শাওন (২০) ইমরান (২০), শামীম (২১) ও আব্বাস (২০)। ২০১৯ সালের ১ মে জেলার রূপগঞ্জ উপজেলার পূর্বাচলের কাঞ্চন এলাকায় লেকের পানিতে ডুবিয়ে তাসিন নামের এক যুবককে হত্যা করে ৩ জন।

নিহত মো. তাসিন মাদারীপুর জেলার শিবচরের মাসুদ মাতবরের ছেলে। সে ঢাকায় ভাড়া থেকে খিলগাঁওয়ের তালতলা এলাকায় একটি কাপড়ের দোকানে কাজ করতো।

পিবিআই এর জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম জানান, গ্রেফতারের পর আসামি নজরুল ও অন্য আসামিরা হত্যাকাণ্ডের ঘটনা স্বীকার করে জানায়, খিলগাঁও রেলগেট হতে ৮নং রুটে নজরুল সিএনজি চালায়। ঘটনার আনুমানিক ২ মাস পূর্বে তার কিছু টাকার প্রয়োজন হলে সে প্রতিবেশী বন্ধু তাসিনের কাছ থেকে ৫০০ টাকা ধার নেয়। এর আটদিন পর তাসিন তার পাওনা টাকা ফেরত চাইলে নজরুল  ৪/৫ দিন সময় চাইলে তাসিন তাকে গালাগালি করে এবং হুমকি দেয়। তাসিনের আচরণে ক্ষিপ্ত হয়ে নজরুল তার ঘনিষ্ঠ বন্ধু শুক্কুর এর সাথে তাসিনকে হত্যার পরিকল্পনা করে।  

পরিকল্পনা অনুসারে ২০১৯ সালের ১ মে সকালে নজরুল, তার আরো সাত বন্ধু শাওন (২০), ইমরান (২০), শামীম (২১), আব্বাস (২০), তাহের, নাদিম ও শুক্কুর আলী মিলে তাসিনকে নিয়ে ঘুরতে যাওয়ার কথা বলে দুইটি সিএনজি অটোরিক্সা যোগে রূপগঞ্জের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। দুপুর সাড়ে বারোটার দিকে তারা রূপগঞ্জ উপজেলার পূর্বাচল ৩০০ ফুট সড়কের কাঞ্চন এলাকার নির্জন একটি লেকের পাড়ে গিয়ে পৌঁছায় এবং সেখানে  একটি হোটেলে একসাথে চা নাস্তা করে। পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী তাসিনকে নিয়ে ইমরান, আব্বাস, শুক্কুর, তাহের, নাদিম, শাওন ও নজরুল লেকের পানিতে গোসল করার কথা বলে নামে। পানিতে নামার একপর্যায়ে শাওন তাসিনের হাত জাপটে ধরে, শুক্কুর তাসিনের গলায় চেপে ধরে, ইমরান তাসিনের পা জাপটে ধরে এবং নজরুল তাসিনের ঘাড় ধরে মাথা ও মুখ পানিতে ডুবিয়ে রাখে। কিছুক্ষণ পর তাসিন পানির নচে তলিয়ে যায়। তাসিনের মৃত্যু নিশ্চিত হয়ে লাশ লেকের পানিতে ডুবিয়ে তারা নিজ নিজ বাসায় চলে আসে ।

পিবিআই এর জেলা পুলিশ সুপার মো. মনিরুল ইসলাম জানান, আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদানের পর আসামীদের জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত অন্যান্য পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।

About

Popular Links