Wednesday, May 22, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে সহযোগিতা করছে ভারত : শ্রিংলা

শ্রিংলা বলেন, রোহিঙ্গাদের জ্বালানির কথা বিবেচনা করে আজকে ১১ লাখ লিটার কেরোসিন, ২০ হাজার স্টোভ বিতরণ করা হচ্ছে।

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০৬:৫৮ পিএম

বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাই কমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলা বলেছেন, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে সব ধরনের সহযোগিতা করছে ভারত। আজ সোমবার দুপুরে কক্সবাজারের উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন ও জ্বালানি তেল বিতরণের সময় তিনি এ কথা বলেন।

শ্রিংলা বলেন, রোহিঙ্গা সংকট শুরুর পর থেকে ভারত বাংলাদেশের পাশে রয়েছে। প্রথম ও দ্বিতীয় দফা ত্রাণ সামগ্রী দেওয়ার পর এবার তৃতীয় দফা হিসাবে কেরোসিন, স্টোভ বিতরণ করা হচ্ছে। রোহিঙ্গাদের জ্বালানির কথা বিবেচনা করে আজকে ১১ লাখ লিটার কেরোসিন, ২০ হাজার স্টোভ বিতরণ করা হচ্ছে। ২০ হাজার রোহিঙ্গা পরিবারকে একটি করে স্টোভ ও ১০ কেজি করে কেরোসিন বিতরণ করা হচ্ছে।

এরই মধ্যে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে ২৫০টি গৃহ নির্মাণ প্রায় শেষ পর্যায়ে। এছাড়াও মিয়ানমারের মংডু জেলার ক্যিং সং গ্রামে আরও ৫০ টি বাড়ির ভিত্তি নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে।

এ সময় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরি মায়া, সচিব মো. শাহা আলম, কক্সবাজার শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার আবুল কালাম, বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির সভাপতি হাফিজ আহমেদ মজুমদার উপস্থিত ছিলেন।

জ্বালানী তেল বিতরণের সময় মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরি মায়া বলেছেন, ‘রোহিঙ্গা সংকটের পর থেকে ভারত আমাদের পাশে রয়েছে। ইতিপূর্বে ভারত রোহিঙ্গাদের শিশু খাদ্য, চাল, ডাল, বর্ষাকালে রেইনকোট, গামবুটসহ বিভিন্ন ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেছে। কিন্তু এবার আমাদের অনুরোধে জ্বালানি তেল ও স্টোভ দিয়ে সাহায্য করেছে। এজন্য ভারতকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’

ভারতীয় সহকারী হাইকমিশন, চট্টগ্রামের দ্বিতীয় সচিব শুভাশিস সিনহা জানান, ১০ সদস্যের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলা। প্রতিনিধি দলটি পরিদর্শন করার পাশাপাশি রোহিঙ্গাদের মধ্যে বিভিন্ন ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেছেন। 

গত বছরের ২৫ আগস্টের পর থেকে এ পর্যন্ত মিয়ানমার সেনাদের নির্যাতনে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গার সংখ্যা প্রায় ১২ লাখের মতো। এই বিশাল সংকটের মধ্যে বিভিন্ন সময় রোহিঙ্গাদের জন্য ত্রাণ সামগ্রী পাঠালেও কখনো প্রতিনিধি পাঠাইনি ভারত। তাই ভারতীয় প্রতিনিধি দলের এ সফরের মধ্য দিয়ে রোহিঙ্গা সংকট নিরসন প্রক্রিয়া আরও এগিয়ে যাবে বলে মনে করছেন অনেকে।

About

Popular Links