Tuesday, May 28, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

দিনাজপুর সীমান্তে দু’দেশের চোরাকারবারীদের সংঘর্ষ, নিহত ১

মাদকের পাওনা টাকার লেনদেনকে কেন্দ্র করে সংঘটিত সংঘর্ষে এক ভারতীয় ও দুই বাংলাদেশিসহ মোট তিনজন আহত হয়েছে

আপডেট : ১২ ডিসেম্বর ২০২০, ১১:২০ এএম

দিনাজপুরের বিরামপুর সীমান্তে মাদকের পাওনা টাকার লেনদেনকে কেন্দ্র করে বাংলাদেশি ও ভারতীয় মাদক চোরাকারবারীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে আলিম মন্ডল (৪০) নামের এক ভারতীয় নিহত হয়েছে। এছাড়া আরও এক ভারতীয় ও দুই বাংলাদেশিসহ মোট তিনজন আহত হয়েছে।

শুক্রবার (১১ ডিসেম্বরে) দুপুরে বিরামপুর উপজেলার কাটলা দাউদপুরের জামালপুর সীমান্তে ২৮৯ মেইন পিলারের ২৫ ও ২৬ সাব পিলারের মাঝামাঝি এলাকায় এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। নিহত আলিম মন্ডল ভারতের জামালপুর গ্রামের বাসিন্দা ছিলো। এঘটনায় একই এলাকার আশারুল মন্ডল আহত হয়ে ভারতের বালুরঘাট হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

বাংলাদেশি আহতরা হলো, বিরামপুর উপজেলার ২নং কাটলা ইউপি সদস্য ও দক্ষিণ দাউদপুর গ্রামের মইনুল ইসলাম (৩৫) ও তার বড়ভাই মমিনুল ইসলাম (৪৫), বর্তমানে তারা দু’জনই বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এদিকে, ঘটনার পর বিকেলে ওই এলাকায় ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ) ও বার্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) এর মধ্যে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে ভারতের ১৯৯ বিএসএফ ব্যটালিয়নের কমান্ডার অজয় কুমার তিওয়ারি ও জয়পুরহাট ২০ বিজিবি ব্যাটালিয়নের উপ-অধিনায়ক মেজর আবু নাঈম খন্দকার উপস্থিত ছিলেন।

সংঘর্ষের ঘটনায় উভয় দেশের জড়িতদের তালিকা করে তাদেরকে শাস্তির আওতায় আনা ও পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে উভয়দেশের নাগরিকদের শান্ত থাকতে বলা হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার বিকেলে বিরামপুর উপজেলার দক্ষিণ দাউদপুর গ্রামের বাসিন্দা মানিকের সাথে ভারতীয় সীমান্তের আলিম উদ্দিনের মাদক ব্যবসার পাওনা টাকা নিয়ে বাক-বিতণ্ডা হয়। শুক্রবার দুপুরে সীমান্তের শূন্য রেখায় নির্মিত মসজিদে নামাজের সময় উভয়পক্ষ মসজিদে নামাজ পড়তে গেলে সেখানে তাদের মধ্যে আবারো কথা কাটাকাটি হয়।

একপর্যায়ে উভয়পক্ষের মধ্যে দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষ শুরু হয়। এতে ঘটনাস্থলেই ভারতীয় নাগরিক আলিম মন্ডলের মৃত্যু হয়। এছাড়াও অপর এক ভারতীয় নাগরিক আশারুল মন্ডল ও দুই বাংলাদেশিসহ তিনজন আহত হয়। পরে নিহত আলিম ও গুরুতর আহত আশারুলকে উদ্ধার করে ভারতের অভ্যন্তরে এবং আহত দুই বাংলাদেশিকে বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

বিজিবি’র ভাইগড় কোম্পানি কমান্ডার সুবেদার শওকত হোসেন ওই ঘটনায় এক ভারতীয় নাগরিকের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। একইসাথে, বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে বলেও জানান তিনি।

About

Popular Links