Thursday, June 20, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বিয়ে খেতে গিয়ে লাশ হলো যুবক

মরদেহটি মাথার পেছনের অংশটিতে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে

আপডেট : ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ১১:৫৫ পিএম

নারায়ণগঞ্জের বন্দরে বন্ধুর বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়ে নিখোঁজের চারদিন পর শীতলক্ষ্যা নদী থেকে যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে নৌ থানা পুলিশ। 

সোমবার (১৮ জানুয়ারি) বিকেলে বন্দরের নবীগঞ্জ ঘাট এলাকা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। নারায়ণগঞ্জ নৌ-থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিদুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নিহত যুবকের নাম সুজন মাহমুদ (২৪)। সে বন্দর উপজেলার কলাবাগ এলাকার আবুল হোসেনের ছোট ছেলে ও নারায়ণগঞ্জ তোলারাম কলেজ বিশ্ববিদালয় বিবিএ শেষ বর্ষের ছাত্র।

নিহতের পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জ তোলারাম কলেজের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র সুজন মাহমুদ গত ১৪ জানুয়ারি রাতে বন্দরের ফরাজীকান্দা ঢালীবাড়ি এলাকায় তার বন্ধু রায়দুলের বড় ভাইয়ের বিয়েতে যোগ দিতে বাড়ি থেকে বের হয়। এরপর থেকেই তার মুঠোফোনটি বন্ধ পাওয়া যাচ্ছিল। এ ঘটনায় নিখোঁজের তিনদিন পর ১৭ জানুয়ারি নিহত সুজনের বড় ভাই মো. শাহ জামাল বন্দর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন।

এদিকে নিখোঁজের ৪দিন পর সোমবার শীতলক্ষ্যায় একটি মরদেহ ভাসতে দেখে উদ্ধার করে নৌপুলিশ। পরে সেটি নিখোঁজ সুজনের মরদেহ বলে শনাক্ত করে তার পরিবার।

পরিবারের দাবি, বৃহস্পতিবার সুজন নিখোঁজ হওয়ার পর একটি অজ্ঞাত মোবাইল থেকে ফোন করে ৩০ হাজার টাকা দাবি করা হয়। কিন্তু এরপর ওই ফোন নাম্বারটি থেকে  আর যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। 

নারায়ণগঞ্জ নৌ-থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) ছগির মিয়া জানান, নৌ পুলিশ একটি ট্রলারডুবির ঘটনায় উদ্ধার অভিযান পরিচালনার সময় কয়েকদিন আগের মৃত একটি মরদেহ উদ্ধার করে। মরদেহ উদ্ধারের পর এটি সুজনের বলে তার পরিবার শনাক্ত করেছেন। মরদেহটি মাথার পেছনের অংশটিতে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে।

ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহটি নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহতের পরিবারের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে পরবর্তী আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে বলেও জানান এসআই।

About

Popular Links