Monday, May 20, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

নদীর পাড়ে পড়েছিল স্বামী-স্ত্রীর লাশ

‘প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যার পর স্বামী বিষপান করে আত্মহত্যা করেছেন’

আপডেট : ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১২:১৫ এএম

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলায় টাঙ্গন নদীর পাড় থেকে এক দম্পতির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। 

মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টার দিকে উপজেলার আকচা ইউনিয়নের বরুনাগাঁও হাজীবস্তির এলাকা থেকে লাশ দুটি তারা উদ্ধার কর হয়। 

নিহতরা হলেন- শহরের ১০ নম্বর ওয়ার্ডের আকচা কাজীপাড়া এলাকার প্রয়াত তোবারক আলীর ছেলে সাইজুল ইসলাম (৪০) ও তার স্ত্রী আসমা বেগম (৩৫)।

ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি তানভিরুল ইসলাম জানান, স্থানীয়দের কাছে খবর পেয়ে টাঙ্গন নদীর পশ্চিম পাড় থেকে সাইজুলের এবং পূর্ব পাড় থেকে আসমার গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

তিনি বলেন, “সুরতহাল রিপোর্ট করার সময় সাইজুলের মুখে বিষের আলামত পাওয়া গেছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যার পর তিনি বিষপান করে আত্মহত্যা করেছেন।”

ঠাকুরগাঁও পৌরসভার ১০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর আলম বলেন, আসমা সাইজুলের দ্বিতীয় স্ত্রী। প্রথম স্ত্রীর ঘরে দুই মেয়ে সন্তান আর দ্বিতীয় স্ত্রীর ঘরে এক ছেলে সন্তান রয়েছে।

তিনি বলেন, “সাইজুলের বসতভিটাটি দ্বিতীয় স্ত্রী তার ছেলের নামে লিখে দেওয়ার জন্য সাইজুলকে চাপ প্রয়োগ করছিলেন। অন্যদিকে প্রথম স্ত্রী তার মেয়েদের নামে ওই বসতভিটা লিখে দেওয়ার জন্য সাইজুলকে চাপ দিতে থাকে। এরই জের ধরে এ ঘটনাটি ঘটেছে বলে ধারণা করছি।”

ওসি তানভিরুল ইসলাম বলেন, “তদন্তের মাধ্যমে মৃত্যুর মূল কারণ ও কারা দায়ী তার উদঘাটন করা হবে। নিহতদের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।”

About

Popular Links