Monday, May 20, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

পার্লারকর্মীকে বাসায় আটকে দেহব্যবসা করাতেন নারী কাউন্সিলর

গত বছরের ১৫ ডিসেম্বর থেকে ১৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ওই কিশোরীকে দিয়ে জোরপূবর্ক পতিতাবৃত্তি করানো হয়

আপডেট : ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০৮:৫৩ পিএম

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের এক নারী কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে নওমুসলিম এক বিউটি পার্লারকর্মীকে (১৬) বাসায় আটকে জোরপূর্বক দেহব্যবসা করানোর অভিযোগ উঠেছে।

এই ঘটনায় গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের সংরক্ষিত ওয়ার্ডের (১৬, ১৭ ও ১৮) কাউন্সিলর রোকসানা আহমেদ রোজীসহ দুইজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে ওই কিশোরী। 

মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) ওই কিশোরী বাদী হয়ে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের বাসন থানায় মামলা দায়ের করে। বাসন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ কামরুল ফারুক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

ওসি মোহাম্মদ কামরুল ফারুক জানান, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর রোকসানা আহমেদ রোজীর মালিকানাধীন চান্দনা চৌরাস্তা এলাকার রহমান শপিং মলের আনন্দ বিউটি পার্লারে প্রায় চার মাস আগে চাকুরি নেন নওমুসলিম ওই কিশোরী (১৬)। তার বাড়ি নেত্রকোনা জেলার কলমাকান্দায়। 

পার্লারে চাকুরির পাশাপাশি তাকে দিয়ে গ্রেট ওয়াল সিটি এলাকার রোজীর ভাড়া বাসায় গৃহকর্মীর কাজ করতে বাধ্য করা হয়। প্রতিবাদ করলে তাকে নানা ধরনের হুমকি দেওয়া হতো। এরপর ওই কিশোরীকে বাসায় আটকে রেখে বাড়ির কেয়ারটেকার নুরুল হকের সহযোগিতায় জোরপূর্বক পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করেন কাউন্সিলর রোজী। গত ১৫ ডিসেম্বর থেকে ১৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ওই কিশোরীকে দিয়ে পতিতাবৃত্তি করানো হয়। 

মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) কৌশলে বাসা থেকে পালাতে সক্ষম হয় কিশোরী। এ ঘটনায় ভিকটিম কাউন্সিলর রোজী ও বাড়ির কেয়ার টেকার নুরুল হকের বিরুদ্ধে মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইনে জবরদস্তি করে সেবা প্রদান ও পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করার অভিযোগে মামলা দায়ের করে। এছাড়াও মামলায় অজ্ঞাত আরও ২-৩ জনকে আসামি করা হয়েছে। 

ওসি বলেন, “অভিযুক্ত নুরুল হককে গ্রেফতার করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে মামলার প্রধান আসামি কাউন্সিলর রোকসানা আক্তার রোজী পলাতক রয়েছেন। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।”  

About

Popular Links