Wednesday, May 22, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ভিকারুননিসায় স্বাস্থ্যকর পরিবেশ নিশ্চিতের জন্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ

গভর্নিং বডির একজন সদস্য অধ্যক্ষের বরাবর ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগে অভিযোগ করেছেন।

আপডেট : ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০৪:৪২ পিএম

রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজে শিক্ষার মানের অবনতি হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ছাড়াও ঐতিহ্যবাহী এই প্রতিষ্ঠানটিতে যোগ্যতা যাচাই না করে খণ্ডকালীন শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া এবং প্রতিষ্ঠানটিতে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ বিরাজ করছে এমন অভিযোগও উঠেছে। 

গভর্নিং বডির একজন সদস্য অধ্যক্ষের বরাবর ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগে এই অভিযোগ করেছেন।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছরের ২৫ জুলাই ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষের কাছে একটি অভিযোগপত্র পাঠান গভর্নিং বডির সদস্য ড. মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম। অভিযোগপত্রের একটি কপি তিনি মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিবের কাছেও পাঠান।

অভিযোগ পাওয়ার পর, সম্প্রতি মন্ত্রণালয় থেকে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানকে এক চিঠিতে, ওই প্রতিষ্ঠানটির টয়লেট ও স্যানিটেশন ব্যবস্থা উন্নত করতে এবং শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যকর পরিবেশ নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলা হয়।

ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের গভর্নিং বডির সদস্য ড. মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম নিজ অভিযোগপত্রে উল্লেখ করেছেন, ‘ভিকারুননিসা স্কুল অ্যান্ড কলেজের মূল শাখা, আজিমপুর শাখা, ধানমন্ডি ও বসুন্ধরা শাখায় ব্যাপক সংখ্যক খণ্ডকালীন শিক্ষক নিয়োগ করা হয়েছে আপনার (অধ্যক্ষ) একক ইচ্ছায়। যোগ্যতা যাচাই-বাছাই ছাড়া দীর্ঘমেয়াদের জন্য এই নিয়োগ দিয়েছেন, যা আপনি পারেন না, বিধিবিধান সমর্থন করে না। এর দায়ভার গভর্নিং বডির সদস্য হিসেবে আমার ওপর বর্তায়।’

অভিযোগপত্রে আরও বলা হয়েছে, ‘প্রতিষ্ঠানটির ১০ জন শাখা প্রধান ও কলেজের সমন্বয়কদের সঙ্গে সমন্বয়ের অভাব লক্ষ করা যাচ্ছে। এসব কার্যক্রমের জন্য স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষার মান অবনতির আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। জরুরিভাবে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করা হলো।’

গভর্নিং বডির এই সদস্য প্রতিষ্ঠানটির অস্বাস্থ্যকর পরিবেশের চিত্র তুলে ধরে আরেকটি অভিযোগ করেছেন মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিবের কাছে। এ বিষয়ে ড. তাজুল তার অভিযোগে বলেছেনন, ‘টয়লেটের অবস্থা এতটাই নোংরা, দুর্গন্ধযুক্ত ও অস্বাস্থ্যকর যে, শিক্ষার্থীরা ক্লাস না করেই বাসায় চলে যেতে বাধ্য হয়। শিক্ষার্থীদের নাকে রুমাল দিয়ে থাকতে হয়।’

এই অভিযোগের পর গত ১৮ সেপ্টেম্বর মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের উপসচিব আনেয়ারুল হক স্বাক্ষরিত আদেশে ভিকারুননিসায় স্বাস্থ্যকর পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানকে অনুরোধ জানানো হয়। ওই আদেশে ভিকারুননিসা স্কুল অ্যান্ড কলেজের শাখাগুলোতে টয়লেট ও স্যানিটেশন ব্যবস্থা উন্নত ও শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যকর পরিবেশ নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে।


About

Popular Links