Friday, June 21, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

নওফেল: অরাজকতা করলে ডিগ্রির স্বীকৃতি বাতিল করা হবে

‘আমরা কওমি শিক্ষার সর্বোচ্চ ডিগ্রিকে জাতীয়ভাবে সম্মান দিয়ে ইসলামিক স্টাডিজের মাস্টার্সের সমমর্যাদা দিয়েছি। তারপরও যদি কেউ অপরাধমূলক কাজ অব্যাহত রাখে তাহলে আমাদের সেই ডিগ্রির স্বীকৃতি বিবেচনা করে দেখতে হবে’

আপডেট : ০৮ এপ্রিল ২০২১, ০৯:৪৩ পিএম

কওমি মাদ্রাসাগুলোকে ব্যবহার করে কেউ অরাজকতা ও অপরাধমূলক কাজ করলে তাদের ডিগ্রির স্বীকৃতি, রাজনৈতিক ও সামাজিক স্বীকৃতি পুনরায় বিবেচনা করে দেখা হবে বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। 

বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) দুপুরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনাভাইরাসের টিকার দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণের পর মহিবুল হাসান চৌধুরী গণমাধ্যমকে এ কথা বলেন। 

কওমি মাদরাসার ছাত্রদের উদ্দেশে উপমন্ত্রী নওফেল বলেন, ‘এতিমখানার ছাত্র, কওমি মাদরাসার ছাত্রদের ব্যবহার করে ইসলামের নাম ব্যবহার করে হেফাজতে ইসলাম নামে একটি গোষ্ঠী দেশে অরাজকতা করছে। দ্বীন ইসলামের প্রতি এ দেশের মানুষের ভক্তি আছে। কওমি মাদরাসার ছাত্র, আমরা সবাই ধর্মপরায়ণ, ধর্মভীরু। সেই ধর্মপরায়ণতাকে পুঁজি করে একটি গোষ্ঠী কওমি মাদরাসার ছাত্রদের ব্যবহার করছে। আপনারা বুঝুন যে আপনারা শুধু ব্যবহৃত হচ্ছেন। আপনাদের উসকানি দিয়ে রাস্তায় নামিয়ে দেওয়া হচ্ছে। আপনাদের দাঙ্গা-হাঙ্গামায় ব্যবহার করা হচ্ছে। অনুরোধ, আপনারা তাদের বিষয়ে সতর্ক হোন এবং এ ধরনের কাজ থেকে বিরত থাকুন।”

অরাজকতা অব্যাহত রাখলে কওমি মাদরাসার উচ্চতর ডিগ্রির সনদের বিষয়ে বিবেচনা করা হবে জানিয়ে উপমন্ত্রী বলেন, “আমরা কওমি শিক্ষার সর্বোচ্চ ডিগ্রিকে জাতীয়ভাবে সম্মান দিয়ে ইসলামিক স্টাডিজের মাস্টার্সের সমমর্যাদা দিয়েছি। তারপরও যদি কেউ অপরাধমূলক কাজ অব্যাহত রাখে তাহলে আমাদের সেই ডিগ্রির স্বীকৃতি বিবেচনা করে দেখতে হবে।”

হেফাজত প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “অপরাধ কেউ করলে প্রশাসন নিয়ন্ত্রণ করবে। রাজনীতি কেউ করতে চাইলে রাজনৈতিক কার্যক্রমে অংশ গ্রহণ করবে। কিন্তু রাজনীতি করব না, রাজনৈতিক কর্মী না আমি, আবার রাজনীতির নাম করে জ্বালাও-পোড়াওয়ের মতো ঘটনা ঘটাব, এইসব কোনোভাবেই মেনে নেওয়া হবে না। মানুষের ভোগান্তি, জানমালের ক্ষতি কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। ইতোমধ্যে অ্যাকশান চলমান আছে, আপনারা দেখছেন বিভিন্ন জায়গায় অ্যাকশন শুরু হয়ে গেছে।”

মামুনুল হক প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “কে কত বড় নেতা, তার কী মান, সেটা আমাদের দেখার বিষয় নয়। মামুনুল হককে আমরা প্রতিরোধ করেছিলাম। সে ভয়ে চট্টগ্রামে আসেনি। কিন্তু এখন দেখা যাচ্ছে, সে একটা চরিত্রহীন ব্যক্তি। সে মিনিটে একজনকে তার প্রথম স্ত্রী বানায়, একজনকে দ্বিতীয় স্ত্রী বানায়।”

অপর এক প্রশ্নের জবাবে মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেন, “করোনা নিয়ন্ত্রণের জন্য কওমি মাদ্রাসাসহ সব আবাসিক–অনাবাসিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তারা যদি না মানে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ইতিমধ্যে পুলিশকে বলে দেওয়া হয়েছে। আজ (কাল) থেকে এগুলো পর্যবেক্ষণ করা হবে।”ৃ

About

Popular Links