Wednesday, May 29, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

গোপালগঞ্জে সংঘর্ষ, পুলিশসহ আহত ৪০

এখন পর্যন্ত পুলিশ অভিযুক্ত ২২ জনকে আটক করেছে

আপডেট : ১৯ এপ্রিল ২০২১, ১১:১১ এএম

গোপালগঞ্জ শহরের টেম্পু স্ট্যান্ডের আধিপত্য নিয়ে  দুই গ্রুপের সংঘর্ষে দুই উপপরিদর্শক (এসআই) ও তিন পুলিশ সদস্যসহ অন্তত ৪০ জন আহত হয়েছে। এ সময় কমপক্ষে তিনটি বাড়ি ও চারটি দোকান ঘর ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে।  

রবিবার (১৮ এপ্রিল) বিকেল ৩টার দিকে ঘোষেরচর উত্তরপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এখন পর্যন্ত পুলিশ অভিযুক্ত ২২ জনকে আটক করেছে ।

আহত ১৭ জনকে গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যারা বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা নিয়েছেন।

গোপালগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পুলিশ টিয়ারসেল, রাবার বুলেট ও ১৫ রাউন্ড শটগানের গুলি চালিয়ে করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ঘটনাস্থলে উত্তেজনা বিরাজ করছে। তাই সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। 

ওই কর্মকর্তা আরও জানান, গোপালগঞ্জ শহরের কাঁচা বাজার সংলগ্ন টেম্পু স্ট্যান্ডের আধিপত্য নিয়ে পাশ্ববর্তী ঘোষেরচর উত্তর পাড়া গ্রামের সুজন শেখ ও সেন্টু শেখের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। গত তিনদিন ধরে এ বিরোধ মারাত্মক আকার ধারণ করে।  রবিবার সকালে দুই গ্রুপের মধ্যে কথাকাটাকাটি ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পুলিশ সেন্টু শেখ মানিক কাজীসহ চারজনকে আটক করে। 

এরই জের ধরে উভয় পক্ষ বিকেল ৩টার দিকে ঘোষেরচর উত্তরপাড়া গ্রামে ধাওয়া পালটা ধাওয়া, ইট-পাটকেল নিক্ষেপ ও দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। প্রথমে স্বল্প সংখ্যক পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ হয়। পরে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নিহাদ আদনান তাইয়ান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) আব্দুল্লাহ আল মাসুদ এর নেতৃত্বে প্রায় ৫০ পুলিশ সদস্য ঘটনাস্থলে গিয়ে বিকেল ৫টার দিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। 

এ ঘটনায় কোন পক্ষই থানায় অভিযোগ দায়ের করেনি। তবে পুলিশের ওপর হামলা ও পুলিশের কাজে বাধা দেওয়ার ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে ওই পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন।  

About

Popular Links