Friday, May 31, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

মালেশিয়ার কথা বলে সমুদ্রে ঘুরিয়ে চট্টগ্রামে!

তিন দালাল নোয়াখালীর ভাসানচর থেকে মালয়েশিয়া পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে রোহিঙ্গাদের কাছ থেকে ২০ হাজার করে টাকা নেন

আপডেট : ৩১ মে ২০২১, ১১:১১ পিএম

চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার সমুদ্র উপকূল থেকে তিন দালালসহ ১০ রোহিঙ্গাকে আটক করেছে পুলিশ। তাদের মালয়েশিয়ায় নিয়ে যাবার কথা বলে সমুদ্রে ঘুরিয়ে চট্টগ্রামের মিরসরাই সমুদ্র উপকূলে নামিয়ে দেন দালালেরা। আটক রোহিঙ্গাদের মধ্যে সাতজন নারী ও তিন শিশু। 

রবিবার (৩০ মে) রাতে উপজেলার ইছাখালী ইউনিয়নের চরশরৎ এলাকায় সমুদ্র উপকূল থেকে ওই ১০ জনকে আটক করা হয়।

আটক দালালরা হলেন- নোয়াখালীর সুবর্ণচরের বেলাল হোসেন, মো. জুয়েল ও চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ উপজেলার দিদারুল আলম। এ ঘটনায় রবিবার রাতেই আটক দালালদের বিরুদ্ধে মানব পাচার আইনে ও প্রাপ্তবয়স্ক সাত রোহিঙ্গা নারীর বিরুদ্ধে বৈদেশিক নাগরিকতা–সম্পর্কিত আইনে দুটি মামলা হয়েছে। সোমবার (৩১ মে) সবাইকে আদালতে পাঠানো হলে আদালত আটককৃত দালালসহ রোহিঙ্গাদের জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

জোরারগঞ্জ থানার পুলিশ জানায়, আটক তিন দালাল নোয়াখালীর ভাসানচর থেকে মালয়েশিয়া পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে রোহিঙ্গাদের কাছে থেকে ২০ হাজার করে টাকা নেন। পরে ভাসানচর থেকে তাদের নৌকায় তুলে সমুদ্রের এদিক–সেদিক ঘুরিয়ে ৩০ মে রাতে মিরসরাইয়ের চরশরৎ এলাকার সমুদ্র উপকূলে নামিয়ে দেন। তখন সেখানে বঙ্গবন্ধু শিল্পনগরের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা আনসার সদস্যদের হাতে আটক হন তারা। এরপর তাদের থানায় নেওয়া হয়।

জোরারগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুর হোসেন মামুন বলেন, “আটকের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিন দালাল মালয়েশিয়া পৌঁছানোর কথা বলে রোহিঙ্গাদের কাছে থেকে টাকা নেওয়ার কথা স্বীকার করেছে। রোহিঙ্গাদের আটকের পর উপকূলীয় এলাকায় নজরদারি বাড়ানো হয়েছে।”

About

Popular Links