Monday, May 20, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

নওগাঁয় প্রশাসনের নির্দেশ অমান্য, মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি

অনেকের মুখেই নেই মাস্ক, সামাজিক দূরত্ব না মেনে চলাফেরা করছে, রাস্তার ধারে এবং বিভিন্ন পাড়ায় অনেক দোকানপাটও খোলা রয়েছে

আপডেট : ০৬ জুন ২০২১, ০২:২০ পিএম

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে নওগাঁ পৌরসভা এলাকা ও নিয়ামতপুর উপজেলায় চলছে সর্বাত্মক লকডাউন। গত বৃহস্পতিবার (৩ জুন) থেকে এলাকাগুলোতে ১৫টি বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়। 

লকডাউনের প্রথম তিন দিন বিধিনিষেধ মানা হলেও চতুর্থ দিনে আগের তুলনায় রাস্তাঘাটে মানুষের চলাচল বেড়েছে। অনেকের মুখেই নেই মাস্ক। সামাজিক দূরত্ব না মেনে লোকজন চলাফেরা করছে। রাস্তার ধারে এবং বিভিন্ন পাড়ায় অনেক দোকানপাটও খোলা রয়েছে।পুলিশ ও প্রশাসনের তৎপরতার কারণে নওগাঁ পৌর শহরের প্রধান সড়ক গুলোতে যানবাহন ও মানুষের চলাচল কম দেখা গেলেও পাড়া-মহল্লার রাস্তাগুলোতে মানুষ অবাধে ঘুরে বেড়াচ্ছে।

রবিবার (৬ জুন) নওগাঁ শহরের বিভিন্ন এলাকা ও নিয়ামতপুর উপজেলায় এসব দৃশ্য দেখা যায়। নিয়ামতপুর উপজেলার টিএলবি বাজার, নীমদিঘী, রামকুড়া মোড়েও একই অবস্থা দেখা গেছে।

এদিকে, গত কয়েক দিন ধরে জেলায় করোনাভাইরাসের সংক্রমণের হার কিছুটা নিম্নমুখী হলেও স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন এখনো করোনাভাইরাসের সংক্রমণের হার রয়েছে, যা বেশ উদ্বেগজনক।

নওগাঁর সিভিল সার্জন ডা. এ.বি.এম. আবু হানিফ বলেন, "মানুষ সচেতন না হলে লকডাউন কিংবা বিধিনিষেধ যতই আরোপ করা হোক না কেন, তা কোনো কাজে আসবে না। মানুষের এমন উদাসীনতার কারণে আমাদের সবাইকে মূল্য দিতে হবে। বিধি নিষেধ আরোপের ফলে সাময়িক একটু কষ্ট হলেও জীবনটা রক্ষা হবে, এই বোধ থেকে আমাদের সবাইকে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা উচিত।"

তিনি বলেন, গত বছরের ১৩ মে নওগাঁয় প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। রবিবার পর্যন্ত ২ হাজার ৩৮৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ পর্যন্ত জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে ৪৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। কয়েক দিন ধরে সংক্রমণ পরিস্থিতি কিছুটা নিম্নমুখী হলেও নওগাঁ এখনো খুব একটা স্বস্তিজনক অবস্থায় নেই। যথাযথভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললেই কেবল এই সংক্রমণ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ হতে পারে। 

নওগাঁ জেলা প্রশাসক হারুন অর রশিদ বলেন, আমরা প্রশাসনের পক্ষ থেকে লকডাউন বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছি। তবে অধিকাংশ মানুষ স্বাস্থ্যবিধি মানছে না। অনেকেই মাস্ক ছাড়া বাড়ির বাহিরে বের হচ্ছে। সামাজিক দূরত্ব মানার ব্যাপারে অনেকেই উদাসীন। কেউ কেউ প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে দোকান খোলা রাখছে। তবে প্রশাসনের পক্ষ থেকে সবাইকে বুঝিয়ে লকডাউন সফল করা হবে বলে জানান তিনি।

About

Popular Links