Tuesday, May 28, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

৮ বছর পর আবারও বাংলাদেশে ওয়াল্ট ডিজনি

পোশাক খাতে কাজের পরিবেশ ও মান উন্নত হওয়ায় এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে ওয়াল্ট ডিজনি

আপডেট : ০৩ জুলাই ২০২১, ০৫:২৪ পিএম

দীর্ঘ আট বছর পর আবারও বাংলাদেশ থেকে পোশাক কেনা শুরু করতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াল্ট ডিজনি কোম্পানি। শুক্রবার (২ জুলাই) সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে বাংলাদেশের পোশাক শিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, পোশাক খাতে কাজের পরিবেশ ও মান উন্নত হওয়ায় এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে ওয়াল্ট ডিজনি।

এ বিষেয়ে শুক্রবার (২ জুলাই) বিজিএমইএ সভাপতি ফারুক হাসান জানিয়েছেন, কাজের পরিবেশ, কর্মক্ষেত্রে নিরাপত্তা ও মান উন্নত করায় ওয়াল্ট ডিজনি বাংলাদেশে ফিরে আসছে। গত বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) রাতে ওয়াল্ট ডিজনির একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ফোনে তাকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি আরও জানান, বন্ধ করার আগ পর্যন্ত কোম্পানিটি বাংলাদেশ থেকে বছরে প্রায় ৫০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের পোশাক কিনেছে। এসব পোশাকের মধ্যে খেলার সামগ্রী, জার্সি, টি-শার্ট ও লেগিং ছিল। বাংলাদেশ থেকে পোশাক কেনা বন্ধ করে দেওয়ার পর প্রতিষ্ঠানটি ভারত, ভিয়েতনাম ও মিয়ানমার থেকে পোশাক কিনতে শুরু করেছিল।

বিজিএমইএ বলছে, গত কয়েক বছরে দেশের পোশাক শিল্পে অগ্নিকাণ্ড ও বৈদ্যুতিক দুর্ঘটনা কমিয়ে আনা ও অবকাঠামোগত নিরাপত্তা নিশ্চিত করার মাধ্যমে শ্রমিকদের কল্যাণ ও সুরক্ষার জন্য অভূতপূর্ব প্রচেষ্টা চালানো হয়েছে এবং বিনিয়োগ করা হয়েছে। সুরক্ষা ব্যবস্থা পরিবর্তনের পুরো কর্মসূচিটি বাংলাদেশ সরকার, আইএলও, আন্তর্জাতিক বিভিন্ন ব্র্যান্ড, উৎপাদক ও বৈশ্বিক ইউনিয়নগুলোর সমর্থন ও সহায়তায় স্বচ্ছভাবে হয়েছে।

আইএলএস (আন্তর্জাতিক শ্রম মান) নিরীক্ষা বিবেচনায় ডিজনি তাদের অনুমোদিত সোর্সিং দেশগুলোর তালিকায় আবারও বাংলাদেশকে অন্তর্ভুক্ত করার কথা বিবেচনা করেছে বলে জানিয়েছে বিজিএমইএ।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালে রানা প্লাজা ধ্বস ও ২০১২ সালের নভেম্বরে তাজরিন ফ্যাশনে আগুন বাংলাদেশের পোশাক শিল্পে বড় দুটি বিপর্যয়ের ঘটনা। এসব ঘটনার কারণে কর্মক্ষেত্রে দুর্বল সুরক্ষা ও মানের কথা উল্লেখ করে ২০১৩ সালে বাংলাদেশ থেকে পোশাক কেনা বন্ধ করে দেয় ডিজনি।

About

Popular Links