Sunday, May 26, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বিধিনিষেধের ৬ষ্ঠ দিনে রাজধানীতে ৪৬৭ গ্রেফতার

বিধিনিষেধ ভঙ্গ করায় আদালত দুই হাজার ৮২৫ জনকে বিভিন্ন পরিমাণ অর্থ জরিমানা করেছেন। জরিমানার টাকা দিতে না পারায় কারাগারে পাঠিয়েছেন ৭৫ জনকে

আপডেট : ০৬ জুলাই ২০২১, ১০:৫১ পিএম

করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধকল্পে বিধিনিষেধের ৬ষ্ঠ দিনে মঙ্গলবার (৬ জুলাই) জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বের হওয়ায় রাজধানী ঢাকায় ৪৬৭ জনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)।

ডিএমপি’র অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) ইফতেখারুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, মঙ্গলবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ডিএমপির আটটি ক্রাইম ও ট্রাফিক বিভাগ রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মোবাইল  কোর্ট পরিচালনা করেছে। মোবাইল  কোর্টে ৩০৫ জনকে ২ লাখ ২৭ হাজার ৪৮০ টাকা এবং সড়ক পরিবহন আইনে ১০৮৭টি গাড়িকে ২৫ লাখ ২৯ হাজার ২৫ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, লকডাউনের শুরুতে জরুরি প্রয়োাজন ছাড়া অযৌক্তিক কারণে বাইরে বের হওয়ায় রাজধানীতে প্রথম দিন ৫৫০ এবং দ্বিতীয় দিন ৩২০ জন, তৃতীয় দিনে ৬২১ জনকে এবং চতুর্থ দিনে ৬১৮ জন ও পঞ্চম দিনে ৫০৯ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এডিসি ইফতেখায়রুল জানান,সরকারি নির্দেশনা প্রতিপালনে সকাল থেকে একযোগে রাজধানীর রমনা, লালবাগ, মতিঝিল, ওয়ারী,  তেজগাঁও, মিরপুর, গুলশান, উত্তরার বিভিন্ন এলাকায় পুলিশের বিভিন্ন  চেকপোস্ট, তল্লাশি ও জিজ্ঞাসাবাদ কার্যক্রম পরিচালিত হয়।

এদিকে, সরকার ঘোষিত ৭ দিনব্যাপী কঠোর বিধিনিষেধের (লকডাউন) ৬ষ্ঠ দিনে আজ মঙ্গলবার পুলিশ, র‌্যাব, সেনাবাহিনী ও বিজিবির সদস্যদের রাজধানীর বিভিন্ন জায়গায় টহল দিতে দেখা গেছে।

তবে গত পাঁচ দিনের তুলনায় মঙ্গলবার সড়কে কর্মজীবী মানুষের সংখ্যা কিছুটা বেশি দেখা গেছে। ট্রাফিক সিগন্যালগুলোতে যানজটও লক্ষ্য করা গেছে।

সকালে যাত্রাবাড়ী এলাকায় গিয়ে দেখা গেছে, রিকশা আর ভ্যানে করে মানুষ নিজের গন্তব্যে যাচ্ছে। তাদের মধ্যে অনেকেই ছিলেন বিভিন্ন ব্যাংক কর্মকর্তা ও কর্মচারী। এছাড়া রাজধানীতে গতকাল ও আজ বৃষ্টিপাত কম হওয়ায় মানুষ আরও বেশী বের হয়েছে।

একই চিত্র বাসাবো ও মানিকনগর এলাকার। সেখানকার অধিকাংশ কর্মজীবী মানুষ মতিঝিলের বিভিন্ন অফিস চাকরি করেন। এসব এলাকায় রিকশা ও ভ্যানের পাশাপাশি ব্যক্তিগত গাড়িও দেখা গেছে। সকাল থেকে নগরীর ফকিরাপুল, রাজারবাগ, মালিবাগ, চৌধুরী পাড়া, বাড্ডা, দৈনিক বাংলা, বাংলা মোটর, কারওয়ান বাজার, মগবাজারসহ বিভিন্ন এলাকাতেও এমন চিত্র দেখা গেছে।

এদিকে, কঠোর বিধিনিষেধ চলার পঞ্চম দিন পর্যন্ত ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম আদালত দুই হাজার আটশ’ ২৫ জনকে বিভিন্ন পরিমাণ অর্থ জরিমানা করেছেন। জরিমানার টাকা দিতে না পারায় কারাগারে পাঠিয়েছেন ৭৫ জনকে। আর সাধারণ ক্ষমা করেছেন ১৬৩ জনকে।

আদালত থেকে পাওয়া তথ্য মতে, কঠোর বিধিনিষেধ চলার পঞ্চম দিন পর্যন্ত দুই হাজার আটশত ২৫ জনকে বিভিন্ন পরিমাণ অর্থ জরিমানা করা হয়েছে। এর মধ্যে বৃহস্পতিবার ২৬৩ জন, শুক্রবার ৬২৯ জন , শনিবার ৬০৭ জন ও রোববার ৬৩৬ জন ও সোমবার ৬৯০ জনকে জরিমানা করা হয়।

এদের মধ্যে জরিমানার টাকা দিতে না পারায় বৃহস্পতিবার ৩ জন, শুক্রবার ৫৪ জন ও শনিবার ১৮ জনকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। রবিবার জরিমানার টাকা দিতে না পারায় ৯৩ জন ও সোমবার ৭০ জনকে সাধারণ ক্ষমা করেছেন আদালত।

করোনাভাইরাসজনিত রোগ (কোভিড-১৯) এর বিস্তার  রোধকল্পে গত ১ জুলাই সকাল ৬টা থেকে ৭ জুলাই মধ্যরাত পর্যন্ত চলাচলে বিধি-নিষেধ আরোপ করা হয়। সোমবার আগামি ১৪ জুলাই পর্যন্ত কঠোর বিধি-নিষেধ আরোপ করে নতুন প্রজ্ঞাপণ জারি করেছে সরকার। 

About

Popular Links