Sunday, May 26, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

করোনাভাইরাস: খুলনায় বেড়েই চলেছে শনাক্তের হার

খুমেকের পিসিআর মেশিনে ৩৭৬টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়, এর মধ্যে ১২৬ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়

আপডেট : ০৯ আগস্ট ২০২১, ১১:৩২ এএম

খুলনার দুইটি হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায়  ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। খুলনা ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালে একজন ও  শহীদ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালে ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। তবে সম্প্রতি জেলায় করোনাভাইরাস শনাক্তর হার বেড়েই চলেছে। বিগত কয়েক সপ্তাহের তুলনায় এ সপ্তাহে শনাক্তের হার দ্বিগুণ। 

রবিবার (৮ আগস্ট) খুলনা জেলায় সংক্রমণের হার ৩৫%। শনিবার (৭ আগস্ট) এই হার ছিল ২৪%। শুক্রবার (৬ আগস্ট) শনাক্তের হার ছিলো ২৯.৭৯%।

রবিবার রাতে খুলনা মেডিকেল কলেজের (খুমেক) উপাধ্যক্ষ ডা. মেহেদী নেওয়াজ জানান, খুমেকের পিসিআর মেশিনে ৩৭৬টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে ১২৬ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। যার মধ্যে খুলনার ৩১২টি নমুনা পরীক্ষায় নতুন করে ১১০ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া গিয়েছে। এছাড়া, বাগেরহাটের ৫ জন, যশোরের ৭ জন, নড়াইলের ২ জন এবং গোপালগঞ্জের ও ঝিনাইদাহের ১ জন রয়েছে।

শহীদ শেখ আবু নাসের হাসপাতাল করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. প্রকাশ দেবনাথ বলেন, "করোনাভাইরাস শনাক্তের হার ঊর্ধ্বমুখী রয়েছে। বর্তমান লকডাউন শিথিল, স্বাস্থ্যবিধি না মানা, সড়কে চলাচল বৃদ্ধি, গণটিকা কার্যক্রমেও সামাজিক দুরত্ব না মানা, টিকাকেন্দ্রে অবাধে ঘোরাফেরা, মাস্ক ব্যবহার কমে যাওয়ার কারণে এ অবস্থার সৃষ্টি হচ্ছে।"

খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনা ইউনিট মুখপাত্র ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার বলেন, "করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ওঠা-নামা করছে। টিকা গ্রহণের পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে হবে।"

খুলনা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিট ফোকালপার্সন ডা. কাজী আবু রাশেদ বলেন, "করোনাভাইরাস সংক্রমণের হার বেড়েছে। এখন থেকে সচেতন না হলে এবং টিকাকেন্দ্রে সামাজিক দুরত্ব বজায় না রেখে চলাচল করলে সংক্রমণ বাড়বে।"

খুলনা ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালের ফোকাল পার্সন ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় রূপসার নাছিমা (৩৫) নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১৩১ জন। যার মধ্যে রেড জোনে ৫৯ জন, ইয়ালো জোনে ৩৯ জন, আইসিইউতে ২০ জন এবং এইচডিইউতে ১৩ জন ভর্তি রয়েছেন। গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে ভর্তি হয়েছেন ২৩ জন আর সুস্থ হয়েছেন ২১ জন।

খুলনার শহীদ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের করোনা ইউনিট মুখপাত্র ডা. প্রকাশ দেবনাথ জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতরা হলেন মোংলার দিগরাজ এলাকার বিশ্বাস আতাউর রহমান (৭৫) ও ঝিনাইদহের হরিনাকুন্ডুর ফজলুর রহমান (৬৫)। হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ভর্তি রয়েছেন ৩২ জন। এর মধ্যে আইসিইউতে রয়েছে ১০ জন। গত ২৪ ঘন্টায় ৩ জন ভর্তি হয়েছেন আর ৫ জন সুস্থ হয়েছেন।

খুলনা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. কাজী আবু রাশেদ জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে কোনো রোগীর মৃত্যু হয়নি। চিকিৎসাধীন রয়েছেন ২৮ জন। তার মধ্যে ১০ জন পুরুষ ও ১৮ জন নারী। গত ২৪ ঘণ্টায়  নতুন করে কোনো রোগী ভর্তি হয়নি। তবে সুস্থ হয়েছেন ২ জন।

খুলনা সিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে বর্তমানে ৬৩ জন ভর্তি রয়েছেন। আইসিইউতে ১০ জন এবং এইচডিইউতে ৩ জন  চিকিৎসাধীন রয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায়  ভর্তি হয়েছেন ১১ জন আর সুস্থ হয়েছেন ৭ জন।

গাজী মেডিকেল হাসপাতালের স্বত্বাধিকারী ডা. গাজী মিজানুর রহমান জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালের করোনা ইউনিটে কোনো রোগীর মৃত্যু হয়নি। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৪১ জন, যার মধ্যে আইসিইউতে রয়েছেন ৪ জন এবং এইচডিইউতে ৩ জন। গত ২৪ ঘণ্টায়

 নতুন করে ভর্তি হয়েছেন ২ জন আর সুস্থ হয়েছেন ৯ জন।

About

Popular Links