Saturday, May 18, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

মা-ছেলেকে অপহরণের ঘটনায় সিআইডির এএসআই, কনস্টেবল বরখাস্ত

শনিবার (২৮ আগস্ট) দুপুরে রংপুর সিআইডির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এসপি) আতাউর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন

আপডেট : ২৮ আগস্ট ২০২১, ০৪:৩৪ পিএম

দিনাজপুরের চিরিরবন্দর থেকে মা-ছেলেকে অপহরণের ঘটনায় রংপুর সিআইডির (পুলিশ অপরাধ তদন্ত বিভাগ) এএসআই হাসিনুর রহমান ও কনস্টেবল আহসানুল হককে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। 

শনিবার (২৮ আগস্ট) দুপুরে রংপুর সিআইডির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এসপি) আতাউর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

প্রসঙ্গত, গত ২৪ আগস্ট বিকালে চিরিরবন্দর থেকে মা-ছেলেকে অপহরণের পর মুক্তিপণ নিতে এসে পুলিশের হাতে ধরা পড়েন বাশেরহাট এলাকা থেকে সিআইডির এএসপি সারোয়ার কবির, এএসআই হাসিনুর রহমান ও কনস্টেবল আহসানুল হক। পরে অপহরণকারী ও ভুক্তভোগীদের দিনাজপুর পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে নেওয়া হয়।

এ ঘটনায় জাহাঙ্গীর আলম বাদী হয়ে ১০ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন। মামলায় রংপুর সিআইডির এএসপি সারোয়ার কবির, এএসআই হাসিনুর রহমান ও কনস্টেবল আহসানুল হক, মাইক্রোবাসচালক হাবিব, নিমনগর বালুবাড়ী এলাকার এনামুল হকের ছেলে ফসিহ উল আলম পলাশকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। তারা আদালতের নির্দেশে কারাগারে রয়েছেন। আসামি পলাশ ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। উদ্ধার হওয়া দুই ভুক্তভোগী ও দুই সাক্ষীর জবানবন্দিও গ্রহণ করেছেন আদালত।

আতাউর রহমান বলেন, ‌“মা-ছেলেকে অপহরণের ঘটনায় এএসআই ও কনস্টেবলকে বরখাস্ত করা হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত কোনও কাগজপত্র পাইনি।”

তবে কেন ঘটনার মুল আসামি রংপুর সিআইডির এএসপি সুপার সরোয়ার কবীর সোহাগকে বরখান্ত করা হয়নি সে সম্পর্কে তিনি কোনো  বলতে রাজি হননি। তবে ঘটনা তদন্তে সিআইডি দিনাজপুরের পুলিশ সুপার পংকজ কুমারকে প্রধান করে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

About

Popular Links