Tuesday, May 21, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

পর্যটকদের জন্য উম্মুক্ত সুন্দরবন, শর্ত ভাঙলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা

ধীরে ধীরে সুন্দরবনে পর্যটকদের আনগোনা বাড়বে বলে প্রত্যাশা পর্যটন ব্যবসায়ীদের

আপডেট : ০১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:২১ পিএম

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে ৫ মাস বন্ধ থাকার পর বুধবার (১ সেপ্টেম্বর) থেকে শর্ত সাপেক্ষে পর্যটকদের ভ্রমণের জন্য সুন্দরবন উন্মুক্ত করা হয়েছে। তবে সুন্দরবন ভ্রমণের সময় স্বাস্থ্যবিধিসহ অন্যান্য শর্তগুলো ভঙ্গ হলে  শর্ত ভঙ্গকারীর বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিকভাবে ব্যবস্থা নেবে বন বিভাগ।

এদিকে ভ্রমণের জন্য দীর্ঘদিন পর সুন্দরবন উন্মুক্ত করা হলেও এখন পর্যন্ত তেমন কোনো পর্যটক আসেননি। তবে ৩ দিন ভ্রমণের জন্য সুন্দরবন পূর্ব বিভাগ থেকে একটি জাহাজ অনুমতি নিয়েছে।

পূর্ব সুন্দরবনের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেন বলেন, “শর্ত সাপেক্ষে ১ সেপ্টেম্বর থেকে সুন্দরবন দর্শনার্থীদের জন্য খুলে দেয়া হয়েছে। ভ্রমণকালে সামাজিক দূরত্ব, স্বাস্থ্যবিধি, মাস্ক পরিধান করতে হবে ও ২৫ জন করে গ্রুপ ভাগ করে নৌ যান থেকে বনে নামতে হবে এবং ঘুরতে হবে। একসঙ্গে বেশি লোক নামা ও ঘোরাফেরা করা যাবে না। এ শর্ত ভঙ্গ করলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।”

এদিকে, সুন্দরবন খুলে দেওয়ায় বিভিন্ন পর্যটন স্পট সংস্কার ও পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার কাজ করেছেন সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। কারণ দীর্ঘদিন ফুট ট্রেইলার ও ওয়াচ টাওয়ারসহ বিভিন্ন স্থাপনা ব্যবহার না হওয়াতে সেগুলোতে ময়লা জমে ও ভেঙ্গে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তাই সেগুলো পরিচ্ছন্ন ও সংস্কার করা হয়েছে।

করমজল পর্যটন ও বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রের ইনচার্জ হাওলাদার আজাদ কবির বলেন, “১ সেপ্টেম্বর থেকে সুন্দরবন পর্যটকদের জন্য খুলে দেওয়ার খবরে সকল ধরণের প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। করমজলে সে সব সমস্যা ছিল তা ঠিক করেছি। পর্যটকরা আসামাত্রই তাদের যথেষ্ট সেবা দিতে সক্ষম হবো।”

পর্যটন ব্যবসায়ী দ্যা সাউদার্ন ট্যুরস এর মালিক মো: মিজানুর রহমান বলেন, “করোনাভাইরাসের কারণে সুন্দরবন বন্ধ থাকায় দীর্ঘদিন ধরে এ ব্যবসার সাথে সংশ্লিষ্টরা মানবেতর জীবনযাপন করে আসছে। এখন সুন্দরবন উন্মুক্ত করে দেওয়ায় শর্ত প্রতিপালন করেই ট্যুর অপারেট করার সার্বিক প্রচেষ্টা চালাবো।”

ট্যুর অপারেটর অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মাজহারুল ইসলাম কচি জানান, সুন্দরবন ভ্রমণ প্রেমীরা অগ্রিম যোগাযোগ করছিলেন। বন বিভাগের সিদ্ধান্তহীনতার কারণে অগ্রিম বুকিং ফিরিয়ে দিয়েছিলেন। বন বিভাগের সিদ্ধান্তের পর ৩ সেপ্টেম্বর সুন্দরবনের করমজলের জন্য একটি বুকিং পেয়েছেন তিনি। এখন পর্যটকদের জন্য অপেক্ষা। ক্রমাগত বুকিং আসছে।

ট্যুর অপারেটর এ্যাসোসিয়েশন অফ সুন্দরবন, খুলনার সভাপতি মঈনুল ইসলাম জামাদ্দার জানান, ট্যুর অপারেটররা জানতেন না যে ১ সেপ্টেম্বর সুন্দরবন পর্যটকদের জন্য খুলে দেওয়া হবে। না জানার কারণে অনেক অগ্রিম বুকিং তারা ফিরিয়ে দিয়েছেন।

ট্যুর অপারেটর এ্যাসোসিয়েশন অফ সুন্দরবন, খুলনার সাধারণ সম্পাদক নাজমুল আজম ডেভিড বলেন, “অক্টোবর থেকে ট্যুরের সিজন শুরু হবে। মূলত তখন থেকে পরবর্তী ৪ মাস পর্যটকদের চাপ থাকবে।”

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণেই গত ৩ এপ্রিল থেকে সংক্রমণের বিস্তার রোধে দ্বিতীয় দফায় সুন্দরবনে পর্যটকদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। এর আগে করোনাভাইরাসের শুরুতে গত বছরের ২৬ মার্চ প্রথম দফায় সুন্দরবনে পর্যটক প্রবেশ নিষিদ্ধ হয়। পরবর্তীতে সেই নিষেধাজ্ঞা গত বছরের ১ নভেম্বর প্রত্যাহার করা হয়।

About

Popular Links