Saturday, May 18, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

জামালপুরের মাদ্রাসা থেকে ‘রহস্যজনকভাবে’ নিখোঁজ তিন ছাত্রীকে পাওয়া গেল রাজধানীতে

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা তিনজন মাদ্রাসা থেকে পালিয়ে ঢাকায় চলে এসেছে বলে জানিয়েছে

আপডেট : ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৪১ এএম

জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার একটি মাদ্রাসা থেকে নিখোঁজ হওয়া তিন শিক্ষার্থীকে রাজধানীর মুগদার মান্ডা এলাকা থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। 

নিখোঁজের পাঁচদিন পর বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত ১২টায় তাদেরকে উদ্ধার করা হলো। এর আগে পুলিশ ও মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ বলেছিল ওই তিন ছাত্রী “রহস্যজনকভাবে” নিখোঁজ হয়েছে। তবে উদ্ধারের পর তাদের বরাত দিয়ে পুলিশ বলছে, মাদ্রাসা পালিয়ে তারা তিনজন রাজধানীতে চলে এসেছিল।

ওই তিন শিক্ষার্থী হলো- উপজেলার গাইবান্ধা ইউনিয়নের পোড়ারচর সরদারপাড়া গ্রামের মাফেজ শেখের মেয়ে মীম আক্তার (৯), গোয়ালেরচর ইউনিয়নের সভুকুড়া মোল্লাপাড়া গ্রামের মনোয়ার হোসেনের মেয়ে মনিরা খাতুন (১১) ও সুরুজ্জামানের মেয়ে সূর্য ভানু (১০)। তারা তিনজনই গোয়ালেরচর ইউনিয়নের বাংলাবাজার এলাকার দারুত তাক্বওয়া মহিলা কওমি মহিলা মাদ্রাসার দ্বিতীয় শ্রেণির আবাসিক শিক্ষার্থী।


আরও পড়ুন- আবাসিক মাদ্রাসা থেকে ‘রহস্যজনকভাবে’ তিন ছাত্রী নিখোঁজ


উদ্ধার অভিযানে নেতৃত্ব দেন জামালপুরের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (ইসলামপুর সার্কেল) মো. সুমন মিয়া।

তিনি জানান, নিখোঁজ শিক্ষার্থীদের সন্ধান পেতে পুলিশ বিভিন্ন সূত্র ধরে সম্ভাব্য জায়গাগুলোতে অভিযান চালায়। এর অংশ হিসেবে রাজধানীর কমলাপুর রেলস্টেশনের সিসিটিভি ফুটেজের মাধ্যমে ওই শিক্ষার্থীদের শনাক্ত করা হয়। পরে স্থানীয় রিকশাওয়ালাদের কাছ থেকে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে মুগদা থানার মান্ডা এলাকার রাজা মিয়া নামে এক রিকশাচালকের বাসায় তাদেরকে পাওয়া যায়।

এএসপি সুমন মিয়া জানান, বস্তির একটি ঘর থেকে তিন শিশুকে উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা মাদ্রাসা থেকে পালিয়ে ঢাকায় চলে এসেছে বলে স্বীকার করেছে। শুক্রবার সকালে তাদেরকে জামালপুরে নিয়ে গিয়ে পালানোর কারণসহ অভিযানের বিস্তারিত তথ্য জানানো হবে।

ইসলামপুরের গোয়ালেরচর ইউনিয়নের বাংলাবাজার এলাকার দারুত তাক্বওয়া মহিলা কওমি মাদরাসার দ্বিতীয় শ্রেণির ওই শিক্ষার্থীরা ঘটনার দিন (১১ সেপ্টেম্বর) রাতে যথারীতি মাদ্রাসার আবাসিক কক্ষে ঘুমিয়ে পড়ে। ১২ সেপ্টেম্বর ভোররাতে শিক্ষকরা ফজরের নামাজ পড়ার জন্য শিক্ষার্থীদের ঘুম থেকে ডেকে তোলেন। অন্য ছাত্রীদের মতোই নিখোঁজ শিশুরাও নামাজের প্রস্তুতি নেয়। তবে নামাজের পর তাদের আর কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি।

About

Popular Links