Thursday, May 30, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

হাজী দানেশ বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫ শিক্ষার্থী বহিষ্কার

অনলাইন পরীক্ষায় সঠিক নিয়ম অনুসরণ না করায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানায় কর্তৃপক্ষ

আপডেট : ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৩১ এএম

পরীক্ষার হলে “নিয়ম অনুসরণ না করা” এবং “অসদুপায় অবলম্বন করা”র অভিযোগে হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (হাবিপ্রবি) পাঁচ শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করেছে কর্তৃপক্ষ। 

এদের মধ্যে তিন শিক্ষার্থীর দাবি, পরীক্ষায় কোনো রকম অসদুপায় অবলম্বন না করার পরেও তাদেরকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

কর্তৃপক্ষ বলছে, পরীক্ষার হলে “নিয়ম অনুসরণ না করা” এবং “অসদুপায় অবলম্বন করা”র কারণে তাদেরকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

জানা গেছে, সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টায় ফুড অ্যান্ড প্রসেস ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের জেনারেল কেমিস্ট্রি কোর্সের পরীক্ষা ছিল। পরীক্ষা শুরু হওয়ার কয়েক মিনিটের মধ্যে এক শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়। তার ১০ মিনিটের মাথায় বহিষ্কার হন ২০তম ব্যাচের আরেক শিক্ষার্থী।

বহিষ্কার হওয়া প্রথম শিক্ষার্থী বলেন, “পরীক্ষা শুরু হওয়ার কয়েক মিনিটের মাথায় স্যার আমাকে ক্যামেরার অ্যাঙ্গেল ঠিক করতে বলেন। তখন ক্যামেরা ঠিক করার সময় আমার লুঙ্গি স্যারের দৃষ্টিগোচর হয়। এ ছাড়াও স্যার আমাকে কয়েকবার ডাকলে আমি না শোনায় স্যার আমাকে পরীক্ষার হল (জুম মিটিং) থেকে রিমুভ করে দেন। পরবর্তীতে আমাকে বহিষ্কার করেন।”

বহিষ্কার হওয়া দ্বিতীয় শিক্ষার্থী বলেন, “আমি যেখানে বসে পরীক্ষা দিচ্ছিলাম তার পিছনে জানালা থাকায় স্যার আমার ফেস ক্যামেরায় সুন্দরভাবে দেখতে পারছিলেন না। তখন স্যার আমাকে জানালার পর্দা ঠিক করতে বলেন। আমি উঠে জানালার পর্দা ঠিক করতে গেলে স্যার আমার লুঙ্গি দেখতে পান। তারপর স্যার আমাকে ড্রেসকোডের কথা তুলে পরীক্ষার হল থেকে (জুম মিটিং) রিমুভ করেন। পরবর্তীতে আমি স্যারকে কল দিলে স্যার আমাকে জানান আমি বহিষ্কার।”

বহিষ্কৃত আরেক শিক্ষার্থী বলেন, “পরীক্ষা চলাকালে আমি ক্যামেরার বাইরে তাকিয়ে ছিলাম। তখন স্যার আমাকে রুমের চারপাশ দেখাতে বলেন। চারপাশ দেখানর সময় আমার পরনের লুঙ্গি স্যারের স্যারের দৃষ্টিগোচর হয় এবং আমাকে জুম মিটিং থেকে বের করে দেওয়া হয়।”

এ বিষয়ে ফুড সায়েন্স অ্যান্ড নিউট্রিশন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. শিহাবুল আউয়াল বলেন, “শিক্ষার্থীরা আমাদের সহযোগিতা করছিল না বরং আমাদের দেওয়া নির্দেশনা তারা অনুসরণ করেনি। আমাদের সাথে তর্কে লিপ্ত হয়েছিল। তারপরও আমরা তাদের সতর্ক করেছিলাম, কিন্তু তারা আমাদের নির্দেশনা না মানায় কয়েকজন শিক্ষার্থীকে পরীক্ষা থেকে বহিষ্কার করতে বাধ্য হয়েছি।”

লুঙ্গি পরার জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, “লুঙ্গি পরার জন্য বহিষ্কার করা হলে আরও অনেককেই বহিষ্কার করতে পারতাম। এটা সম্পূর্ণ বানোয়াট কথা। তবে আমরা শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা শুরুর আগেই শালীন এবং মার্জিত পোশাক পরতে বলি।”

About

Popular Links