Saturday, May 18, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

খাওয়া-দাওয়া শেষ, শেষ মুহূর্তে বন্ধ বিয়ে

সোনাগাজী সদর ইউনিয়নের সুজাপুর গ্রামের এক কিশোরীর সঙ্গে উপজেলার বক্তারমুন্সি এলাকার এক প্রবাসী যুবকের বিয়ের দিন ধার্য ছিল বুধবার। 

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০১৮, ১০:৩০ পিএম

খাওয়া-দাওয়ার পর্ব শেষ, শুধু বিয়ে পড়ানো বাকি। এমন সময়ই প্রশাসনের তৎপরতায় বন্ধ হয়েছে বাল্যবিবাহ। গতকাল বুধবার ফেনীর সোনাগাজী উপজেলায় ঘটেছে এ ঘটনা। 

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, সোনাগাজী সদর ইউনিয়নের সুজাপুর গ্রামের এক কিশোরীর সঙ্গে উপজেলার বক্তারমুন্সি এলাকার এক প্রবাসী যুবকের বিয়ের দিন ধার্য ছিল বুধবার। বিয়ের সব আনুষ্ঠানিকতা ও উভয় পক্ষের অতিথিদের খাওয়া -দাওয়া শেষ করা হয়। শুধুমাত্র বিয়ে পড়ানো বাকি ছিল।

এসময় গোপনে সংবাদ পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. সোহেল পারভেজ দুপুরে স্থানীয় ইউপি প্যানেল চেয়ারম্যান ইমাম হোসেন ও উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার সহকারী মো. শাহ পরানকে ওই কিশোরীর বাড়িতে পাঠিয়ে বিয়ে বন্ধ করেন। প্রশাসনের উপস্থিতি টের পেয়ে বরসহ অতিথিরা পালিয়ে যায়।

প্যানেল চেয়ারম্যান ইমাম হোসেন জানান, ওই কিশোরীর বিয়ে বন্ধ করে ১৮ বছর পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত মেয়েকে বিয়ে দেবে না মর্মে তার বাবা-মা ও আত্মীয়দের কাছ থেকে অঙ্গিকারনামা নেওয়া হয়েছে।

ইউএনও সোহেল পারভেজ জানান, এখন ওই কিশোরীর বয়স ১৮ বছর না হওয়ায় বিয়ে বন্ধ করে দিয়ে দুই পক্ষকে বাল্য বিয়ের কুফল সম্পর্কে জানানো হয়েছে। বাল্য বিয়ে প্রতিরোধে সবাইকে সচেতন হতে হবে।

About

Popular Links